অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ গর্ভবতী মায়েদের গর্ভাবস্থায় নিজের ও গর্ভের সন্তানের জন্য করণীয় জানিয়ে নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে শুরু হয়েছে ‘বেবি বেসিকস বাংলাদেশ’ কর্মসূচি। কর্মসূচির অধীনে মায়েদের গর্ভাবস্থা সম্পর্কে সহজ পদ্ধতিতে সঠিক তথ্য তুলে ধরার জন্য প্রধান উপকরণ হিসেবে সচিত্র বই ‘বাবু বার্তা’ ও এর অডিওর মোড়ক উন্মোচনও করা হয়। নারীর গর্ভধারণকে আরও নিরাপদ করতে ‘আমার মাঝেই বাড়ছে শিশু,পাতায় পাতায় জানছি কিছু’ স্লোগান নিয়ে চালু হয়েছে কর্মসূচিটি। ১২টি সহযোগী প্রতিষ্ঠান নিয়ে এটি পরিচালনা করবে স্বাস্থ্য বিষয়ে বিভিন্ন সামাজিক কর্মসূচি পরিচালনাকারী সংস্থা ডিনেট। এতে আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের উইমেনস হেলথ ইনোভেশন প্রোগ্রাম (ডাব্লিউএইচআইপি)।এছাড়া পুরো প্রকল্পে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছে যুক্তরাষ্টের হোয়াট টু এক্সপেক্ট ফাউন্ডেশন। একইসঙ্গে বাংলাদেশ এবং লাইবেরিয়ায় এই কর্মসূচির কাজ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বাংলামটরে বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয় ‘বেবি বেসিকস বাংলাদেশ’ কর্মসূচির।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট ও নারীপক্ষের সদস্য শিরিন হক। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পাবলিক অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান অ্যান ম্যাককনেল।প্রধান অতিথির বক্তব্যে গওহর রিজভী বলেন, “প্রথম থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের ভাল সম্পর্ক রয়েছে। এই কর্মসূচি এই সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করবে।” ‘বাবু বার্তা’ বইয়ের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “বাংলাদেশে চিকিৎসক ও নার্সদের ঘাটতি রয়েছে। এমনকি আমরা প্রচুর সংখ্যক ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ করলেও প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোতে চিকিৎসা সেবা পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ঘাটতি থেকেই যায়। এমন জায়গাগুলোতে এ ধরনের একটি বই খুবই কার্যকরী হবে।” বইটি প্রকাশনার সঙ্গে জড়িতদের ধন্যবাদ জানিয়ে ড. গওহর রিজভী বলেন, “সরকারের কঠোর পরিশ্রমে বাংলাদেশে আজ অনেকাংশে মাতৃ ও শিশু মৃত্যু হার হ্রাস পেয়েছে। এ কাজে বর্তমানে বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও এগিয়ে আসছে।” বেসরকারি সংগঠনগুলো সরকারের সঙ্গে সমান তালে কাজ করে গেলে এক সময় বাংলাদেশে মা ও শিশুর মৃত্যুহার শূন্যের কোঠায় পৌঁছে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেন, “মাতৃ মৃত্যু হার কমানো এবং জন্মহারের দিক থেকে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। হাতে গোনা যে কয়টি দেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি ৪ ও ৫) অর্জনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেগুলোর মধ্যে একটি।

“কিন্তু এখনো বাংলাদেশের বিশাল অবকাঠামো সত্ত্বেও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা জনসংখ্যার চাহিদা অনুযায়ী সেবা দিতে পারছে না। তবে তারপরও গত এক দশকে জন্মহার কমিয়ে আনা, নারীদের শিক্ষার হার ও জীবনযাত্রার মান বাড়িয়ে এবং প্রসূতি মায়েদের কাছে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিয়ে মাতৃ মৃত্যু ৪০ শতাংশ কমিয়ে আনা হয়েছে।” বেবি বেসিকস বাংলাদেশ কর্মসূচি এই হার আরও কমিয়ে আনবে এবং অনেক মায়ের জীবন বাঁচাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রখেন ডিনেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা অনন্য রায়হান। বেবি বেসিকস কর্মসূচি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করেন প্রকল্প পরিচালক ইফফাত নেওয়াজ। বাংলাদেশের গ্রামীণ মায়েদের কথা মাথায় রেখে মূলত নিম্ন আয়ের স্বল্পশিক্ষিত জনগোষ্ঠীর জন্য প্রচুর ছবিসহ আকর্ষণীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্য তথ্য দিয়ে সাজনো হয়েছে ‘বাবু বার্তা’ বইটি।

মাতৃস্বাস্থ্য তথ্য ছাড়াও বইটিতে সন্তান প্রসবপূর্ব অবস্থা, সন্তান প্রসব, বাবার ভূমিকা, পরিবারের ভূমিকা এবং গর্ভবতী মায়ের জন্য বরাদ্দ সরকারি স্বাস্থ্য ও অন্যান্য সুবিধাদি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বইটিতে গর্ভাবস্থা সংক্রান্ত বিভিন্ন কুসংস্কার এবং একজন নারীর গর্ভকালীন এবং একটি শিশুর জন্মপরবর্তী সুবিধাদি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নিরক্ষর মায়েদের কাছে তথ্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য তৈরি করা হয়েছে ‘বাবু বার্তা’র অডিও বুক। বইটিকে মায়েদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে এবং বইয়ের বিষয়বস্তু মায়েদের কাছে তুলে ধরতে মম’স ক্লাব বা মায়েদের গল্প নামে একটি প্ল্যাটফর্মের আয়োজন করা হয়েছে। এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অডিও বুকটি তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ২০০ জন প্রশিক্ষিত সহায়তাকারীর মাধ্যমে দেশের ১৯টি জেলায় প্রাথমিকভাবে ১৮ হাজার মম’স ক্লাব গঠন করা হবে। আগামী মাস থেকে এ ক্লাবগুলোর কার্যক্রম শুরু হবে। ক্লাবগুলোর মাধ্যমে বাংলাদেশের ৩৮০০০ গর্ভবতী মায়ের কাছে বইটি পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করবেন সহায়তাকারীরা।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।