অধ্যাপক ডাঃ এস, এম, এ, এরফান:   পায়ুপথের বিশেষ একটি রোগ। বিশেষ বিশেষ বয়সে এট সাধারনত: হয়। সেই বয়স গুলো হচ্ছে জীবনের দুই প্রান্তের বয়স। অর্থাৎ শিশু বয়সে রোগের প্রকৃতি ভিন্ন। রেকটাল প্রলাপস কি? রেকটাল প্রলাপস সোজা বাংলায় হচ্ছে মলাশয় বের হয়ে আসা। অর্থাৎ মল যেখানে জমা হয়, সেই মলাশয়ই যখন বের হয়ে আসে স্বাভাবিক ভাবেই মলত্যাগে তখন মারাত্বক সমস্যা তৈরী হয়। সেই সমস্যার গতি প্রকৃতি নিয়েই আজকের লেখা। আগেই বলেছি এটি শিশু ও বৃদ্ধদের বেশী হয়। শিশু ও বৃদ্ধদের রেকটাল প্রলাপস ভিন্ন প্রকৃতির। শিশুদের যে প্রলাপস হয় তাকে বলা হয় আংশিক প্রলাপস অর্থাৎ মলদ্বার এর যে স্তর সমূহ আছে তার একটি স্তর বের হয়ে আসে। এটি বেশ পাতলা হয় এবং শিশুর বয়স ৫/৬ মাস বয়স থেকেই এটি হতে পারে। এ ক্ষেত্রে শিশুর মলত্যাগের সাথে মলদ্বারের একটি অংশ বের হয়ে আসে। সুখবর হচ্ছে অধিকাংশ ক্ষেত্রে এর অপারেশন লাগে না। অধিকাংশ ক্ষেত্রে মা-ই চিকিৎসা করতে পারেন। চিকিৎসক মাকে শিখিয়ে দেন কিভাবে মলত্যাগের পর টিস্যু দিয়ে বের করা অংশটি যায়গা মত বসিয়ে দিতে হবে। এভাবে বার বার বসিয়ে দিলে অনেক শিশুর রোগটি সেরে যায়। মায়ের চিকিৎসায় সেরে না গেলে উক্ত স্থানে ইনজেকশনের মাধ্যমে কিছু ঔষধ প্রদানের মাধ্যমে চিকিৎসা করা যায়, একে বলা হয় ইনজেকশন স্কেলেরো থেরাপি। যাদের এসব কিছুতে হয় না, তাদের শেষ পর্যন্ত একটি ছোট খাটো অপারেশন লাগে। বিষয়টি যাই হোক না কেন, অনেক মা-বাবা এই জাতীয় ব্যাপার দেখলে ঘাবড়ে যান। এই সব মা বাবাদের আস্বস্থ করতে চাই যে, এতে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। কারন এসব কিছুর চমৎকার চিকিৎসা আছে। শুধু প্রয়োজন সঠিক স্থানে চিকিৎসার জন্য যেতে পারা, ভূল স্থানে চিকিৎসার জন্য গেলে অনেক সময়ই মারাত্বক বিপদের সম্মূখীন হতে হয়। তাই অন্য সকল ক্ষেত্রের মত, এখানেও সচেতনতার কোন বিকল্প নাই।

অধ্যাপক ডাঃ এস, এম, এ, এরফান
বিভাগীয় প্রধান, সার্জারী বিভাগ
এম এইচ শমরিতা হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজ

জাপান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ হাসপাতাল
জিগাতলা, ধানমন্ডি

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।