অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ জাতীয় সংসদের স্পীকার ডা. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, স্বাস্থ্যসেবার ব্যায় সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।  তিনি বলেন, এই ব্যায় বহন সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসতে হবে। সম্প্রতি পঞ্চম আন্তর্জাতিক কার্ডিওলজি ও কার্ডিয়াক সার্জারি ও তৃতীয় ঢাকা লাইভ সম্মেলনের উদ্বোধনকালে একথা বলেন  শিরীন শারমিন চৌধুরী। এসময় তিনি বলেন, গত ১০দশকে আমাদের দেশের স্বাস্থ্যখাত অনেক এগিয়ে গেছে। আর এই এগিয়ে যাওয়ার ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের সকলকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

মো. নাসিম তার বক্তব্যে বলেন, ৬টি বিভাগীয় জেলা শহরের হাসপাতালে কার্ডিয়াক সেন্টার স্থাপন করা হবে। অনেক সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা না পেয়ে অনেকেই মারা যান। বরিশালের জনপ্রিয় মেয়র শওকত হোসেন হিরণের কার্ডিয়াক এরেস্টে চিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যুবরণ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঢাকা পর্যন্ত না আসতে পেরে তিনি হঠাৎ করেই মৃত্যুবরণ করেন যা খুবই দু:খজনক। এসময় তিনি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তি করার বিষয়ে তিনি বলেন, একজন ফেল করা ছাত্র কখনো ভালো চিকিৎসক হতে পারে না। আমরা চাই বেসরকারি মেডিকেল কলেজ গড়ে উঠুক। তবে অবশ্যই মান বজায় রাখতে হবে। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি আরো বলেন, আমরা মোহনার মতো হাসপাতাল চাই না, কসাই সার্জন চাই না।

ল্যাবএইডের উদ্দেশ্যে তখন তিনি বলেন, আপনাদের চিকিৎসা চার্জ একটু কমান। অনেক মধ্যবিত্ত ও নি¤্নবিত্ত মানুষ ল্যাবএইডের নাম শুনে ছুটে আসে। একটু যুক্তিসংগত দাম রাখলে রোগীরা উপকৃত হবে। ভালো হোটেল করার বদলে হাসপাতাল গড়ে তোলেন। জনগণ উপকৃত হবে। ল্যাবএইড গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এ এম শামীমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী জাহেদ মালেক। এর আগে সকাল ৯টা থেকে অনুষ্ঠানটির কার্যক্রম শুরু হয়। মোট পাঁচটি প্ল্যানারী সেশনে অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। এই পাঁজচটি প্ল্যানারী সেশনে অংশ নেন বাংলাদেশের খ্যাতিমান বিভিন্ন কার্ডিওলজিস্ট ও কার্ডিও সার্জনসহ বিশ্বেও বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ২৭জন খ্যাতিমান কার্ডিওলজিস্ট ও কার্ডিও সার্জনরা। অনুষ্ঠানে তারা তাদের বিভিন্ন সাইন্ট্যাফিক চিকিৎস পদ্ধতিগুলোর প্রদর্শন করেন। তিন দিন ব্যাপী এই আন্তর্জাতিক কার্ডিওলজি ও কার্ডিয়াক সার্জারি ও তৃতীয় ঢাকা লাইভ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয় ১৮ডিসেম্বও সকাল থেকে এবং তা শেষ হয়  ২০ ডিসেম্বর দুপুরে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।