অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ ইবোলা থেকে সেরে ওঠা এক মার্কিন চিকিৎসকের চোখে এই রোগের ভাইরাস পাওয়া গেছে। আজ শনিবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সিয়েরা লিওনে কাজ করার সময় ওই চিকিৎসক ইবোলায় আক্রান্ত হন। চিকিৎসা শেষে তাঁকে ‘ইবোলামুক্ত’ ঘোষণা করা হয়েছিল। সেরে ওঠার দুই মাস পর ঐ মার্কিন চিকিৎ​সক চোখে অস্পষ্ট দেখা ও ব্যথার সমস্যা নিয়ে আবার চোখের চিকিৎসকের কাছে যান। পরীক্ষায় তাঁর চোখে ইবোলার ভাইরাস পাওয়া যায়। তবে, বিজ্ঞানীরা বলছেন, তাঁর চোখের সংক্রমণ অন্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ নয়। নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিন সাময়িকীতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বিজ্ঞানীরা সতর্ক করে বলেছেন, শরীরের অন্য কোনো অংশে ইবোলা ভাইরাস দীর্ঘসময় ধরে থেকে যেতে পারে কি না, তা নিয়ে গবেষণার দরকার আছে। ইবোলায় আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে সাধারণত রক্ত পরীক্ষা করে তাতে ভাইরাসের উপস্থিতি না পেলে সংশ্লিষ্ট রোগীকে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এখন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শরীরের অন্য কোনো অংশেও ইবোলার ভাইরাস থেকে যেতে পারে। ইমোরি ইউনিভার্সিটির স্কুল অব মেডিসিনের বিজ্ঞানীসহ একটি বিশেষজ্ঞ দলের ভাষ্য, চোখে থেকে যেতে পারে ইবোলা। তা পরবর্তী সময়ে ক্ষতির কারণও হয়ে উঠতে পারে। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪৩ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি গুরুতর ইবোলা সংক্রমণ থেকে সেরে ওঠেন। তিনি কয়েক সপ্তাহ নিবিড় পরিচর্যায় ছিলেন। তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার অল্প সময়ের মধ্যে তিনি চোখে তীব্র জ্বালাপোড়া অনুভব করতে থাকেন। এ ছাড়া চোখেও অস্পষ্ট দেখেন। পরীক্ষায় দেখা যায়, তাঁর বাম চোখের তরল পদার্থে ইবোলার ভাইরাস রয়ে গেছে। চিকিৎসকেরা বলছেন, রোগীর চোখে ব্যাপক প্রদাহ ছিল। এতে তিনি অন্ধও হয়ে যেতে পারতেন। অবশ্য তিন মাসের চিকিৎসার পর ওই রোগীর দৃষ্টিশক্তির উন্নতি হয়েছে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।