অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ   শুক্রবার সকালে সাবিনা ইয়াসমিন লিপি নামের এক প্রসূতির  লক্ষ্মীপুর মডেল হাসপাতাল (প্রা. ) লিমিটেডে মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলায় অক্সিজেনের অভাবে এই রোগী মারা গেছেন এমন অভিযোগে হাসপাতাল ভাঙচুর করেছে স্বজন ও বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এ সময় হাসপাতালের ম্যানেজার ও এক স্টাফকে মারধর করে তারা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মো. শহীদ, মাইন উদ্দিন ও সফিউল্যাহ নামের তিনজনকে আটক করে। নিহত লিপি সদর উপজেলার বাঞ্চানগর গ্রামের লেদু মেকারের মেয়ে । পুলিশ, নিহত রোগীর পরিবার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার লিপির প্রসব বেদনা উঠলে লক্ষ্মীপুর মডেল হাসপাতালে ভর্তি করে তার পরিবার। এরপর লক্ষ্মীপুর সরকারি হাসপাতালের গাইনী বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার ইসরাত জাহান এ্যানী তার চিকিৎসা শুরু করেন। এর মধ্যে লিপির গর্ভের সন্তান মারা যায়। বিষয়টি গোপন রেখে মডেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লিপির চিকিৎসা চালালেও শেষ পর্যন্ত দায়িত্ব অবহেলায় লিপি মারা যায় বলে অভিযোগ তার স্বজনদের। ঘটনা ফাঁস হয়ে গেলে এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে তার স্বজন ও এলাকাবাসী। এক পর্যায়ে হাসপাতালের দরজা-জানালা ও গ্লাস ভাঙচুর করে হাসপাতালের ম্যানেজার ও স্টাফকে মারধর করে তারা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনজনকে আটক করে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাসপাতালের চেয়ারম্যানকে তার কক্ষে পাওয়া যায়নি। তবে মুঠোফোনে হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আজাদ হোসেন জানান, রোগীর হাই প্রেশার থাকায় অপারেশন করা সম্ভব হয়নি। রোগী হঠাৎ করে মারা যাওয়ায় তার স্বজনরা বিক্ষুব্ধ হয়ে হাসপাতাল ভাঙচুর করে দুইজনকে মারধর করে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন জানান, হাসপাতাল ভাঙচুর করার ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। রোগী মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

 

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।