অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ থ্যালাসেমিয়া রোগ প্রতিরোধে সমাজের সচেতন নাগরিক, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস উপলক্ষে আজ এক বাণীতে তিনি এ আহ্বান জানান। বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতির উদ্যোগ প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ‘বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস’ উপযাপিত হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, দিবসটি উদযাপনের মধ্য দিয়ে থ্যালাসেমিয়া রোগ প্রতিরোধে জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হবে বলে আমার বিশ্বাস। তিনি বলেন, থ্যালাসেমিয়া একটি জিনবাহিত রোগ যা বাহকের মাধ্যমে ছড়ায়।রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমি জানতে পেরেছি বাংলাদেশে শতকরা ১০ থেকে ১২ ভাগ মানুষ থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক। চিকিৎসকদের মতে স্বামী-স্ত্রী উভয়ই থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক হলে তা জিনগত কারণে তাদের সন্তানদের মধ্যে এ রোগের বিস্তার ঘটতে পারে। এ জন্য পুরুষ বা মহিলা যে কেউ এ রোগের বাহক কিনা তা বিবাহ-পূর্ব পরীক্ষার মাধ্যমে নির্ণয় করা জরুরি।’ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে থ্যালাসেমিয়া রোগ প্রতিরোধে থ্যালাসেমিয়া জিন বাহক নারী-পুরুষের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপনে সতর্কতা অবলম্বন করা হয়ে থাকে উল্লেখ করে আবদুল হামিদ বলেন, আমাদের দেশেও এ রোগ প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণকে এই রোগ সম্পর্কে সচেতন করতে হবে, যাতে তারা বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপনের পূর্বে থ্যালাসেমিয়া রোগের জিন বাহক কি না তা নির্ণয় করতে আগ্রহী হয়। তিনি ‘বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত সকল কর্মসূচির সাফল্য কামনা করেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।