অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ নিয়মিত ম্যানিকিউর করলেই যে নখ সুন্দর থাকবে এমন কোনো কথা নেই। ভেতরে নখের স্বাস্থ্য ঠিকঠাক থাকলে বাইরেও তা প্রকাশিত হবে। নখ কতটা শক্ত হবে, পাতলা না মোটা হবে তা অনেকটা জিনগত হলেও স্বাস্থ্যসম্মত বিশেষ খাবারদাবার নখের দারুণ উন্নতি ঘটাতে সক্ষম। আইএএনএস অবলম্বনে ঝকঝকে সুন্দর ও শক্তপোক্ত নখের জন্য উপকারী কিছু খাবারের কথা তুলে ধরা হলো।

কলিজা, লৌহ জাতীয় খাদ্য

দুর্বল, ভঙ্গুর নখের অন্যতম প্রধান কারণ আয়রন বা লৌহের অভাব। গরু, খাসি, হাঁস, মুরগিসহ প্রাণীর কলিজায় প্রচুর পরিমাণে লৌহ থাকে। কলিজা ছাড়াও নানা প্রত্যঙ্গের মাংস লৌহ সমৃদ্ধ হয়ে থাকে, ফলে সেসবও খেতে পারেন। আর যারা নিরামিষাশী তারা লৌহের চাহিদা পূরণের জন্য পালং শাক, ডাল, সিমসহ লৌহ সমৃদ্ধ শাক-সবজি-ফল-মূল বেশি করে খেতে পারেন।

সামুদ্রিক মাছ খান

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছ খান। এসব মাছ স্বাস্থ্যকর প্রোটিন ও সালফারেরও ভালো উৎস। স্যালমন, ম্যারকেল, কড এবং সার্ডিন মাছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডের পরিমাণ অনেক বেশি। এ ছাড়া অন্যান্য সামুদ্রিক মাছও এসব পুষ্টিগুণে কমবেশি সমৃদ্ধ। ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড নখের গোড়া শক্তিশালী করবে এবং পাতলা নখের ভঙ্গুরতা কমাবে। ফসফরাস ও সালফার নখ পুরু ও শক্ত করবে।

দুধ, দই ও পনির

নখের গঠনে মূল উপাদান হলো কেরাটিন, যা এক ধরনের প্রোটিন। দুধ ও দুধজাত নানা খাবারদাবার ক্যালসিয়াম, বায়োটিন ও প্রোটিনের খুবই ভালো উৎস। এ সবই কেরাটিনের শক্তিশালী গঠনে দারুণ উপকারী। বায়োটিন ও ক্যালসিয়াম নখ শক্তিশালী করে তোলে, ফলে নখ অল্পতেই ভেঙে যায় না।

ডিমের সাদা অংশ

প্রাণীজ প্রোটিনের খুবই ভালো উৎস ডিমের সাদা অংশ। নখকে পুরু ও শক্তিশালী করতে এটা খুবই উপকারী। ডিমের সাদা অংশে বায়োটিনের পরিমাণও বেশ ভালো। তবে নখের জন্য ডিমের সাদা অংশের এসব উপকার পেতে হলে ডিম সেদ্ধ বা রান্না করে খেতে হবে।

কুমড়ো বিচি, তিল ও ওট

দস্তা আমাদের শরীরে জন্য খুব প্রয়োজনীয় হলেও আমাদের অনেকেরই দস্তার ঘটাতি থাকে। দস্তার ঘাটতির কারণে নখ দুর্বল, ভঙ্গুর হতে পারে। নখের ওপর ছোপ ছোপ দাগের মতো পড়তে পারে। কুমড়োর বিচি, তিল ও ওট দস্তার খুবই ভালো উৎস। সকাল বা বিকেলের নাশতায় ওট খেতে পারেন। আর ভেজে নেওয়া মচমচে কুমড়ো বিচি খেতে দারুণ।

সুত্রঃ প্রথম আলো 

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।