অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ রক্তে অতিরিক্ত  কোলেস্টেরলে জীবনঘাতী রোগসহ নানা শারীরিক জটিলতা হতে পারে। তাই অতিরিক্ত কোলেস্টেরল নিয়ে অনেকেই চিন্তিত থাকেন। নিয়মিত পাঁচটি খাবার খেলে আপনি কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন। পরীক্ষা করে দেখতে পারেন খাবার পাঁচটি আপনাকে কোলেস্টেরলমুক্ত রাখতে ভূমিকা রাখে কিনা।

সবুজ চা : সবুজ চা কোলেস্টেরল কমায়। দিনে মাত্র পাঁচ কাপ সবুজ চা পান করলে ২৫ শতাংশ কোলেস্টেরল ও রক্তচাপ কমে যেতে পারে। রক্ত পরিস্কার হয়, দূর হয় রক্তের জমাট বাঁধা। হৃদ্যন্ত্রকে সুরক্ষা দেয় সবুজ চা। সবুজ চায়ে থাকে পর্যাপ্ত ফলিক অ্যাসিড। ফলিক অ্যাসিড হার্টের সমস্যা ও ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। বার্লি : গবেষণায় দেখা গেছে, বার্লি কোলেস্টেরলের মাত্রা ১৫ শতাংশ কমিয়ে দিতে পারে। বার্লিতে আছে বিটা গ্লকন। বার্লি হচ্ছে এক প্রকার দ্রবণীয় ফাইবার। এটি কোলেস্টেরল ও অন্ত্রের চর্বি দূর করে। শরীর থেকে মেদ অপসারণ করে দূর করে কোলেস্টেরল। বার্লি হার্টের জন্যও খুব উপকারী।  সয়াবিন : শরীরের খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে সহায়তা করে সয়াবিন। বৃদ্ধি করে ভালো কোলেস্টেরল। মানুষের ধমনীতে কোলেস্টেরলের যে জারন হয় তাতে বাধা দেয় সয়াবিন। প্রতিরোধ গড়ে তোলে হাইপারকলেস্টেরোমিয়ার বিরুদ্ধে। সয়াবিন হার্টের সমস্যা দূর করে ও কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয়। ইসুবগুল : নিয়মিত ইসুবগুল খেলে কোলেস্টেরলের সমস্যা দূরে হয়ে যাবে। কারণ, ইসুবগুল রক্তের কোলেস্টেরল কমিয়ে দেয়। এটি শরীরের প্রদাহজনিত সমস্যাতেও ভালো ফলদায়ক। ইসুবগুল হার্টের জন্যও ভালো। ওট : পরীক্ষায় দেখা গেছে, দিনে মাত্র তিন গ্রাম ওট খেলে কোলেস্টেরলের সমস্যা ভালো হয়ে যায়। এটি খারাপ কোলেস্টেরল কমিয়ে দেয়। ফলে মানুষের হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায় অনেকটাই। ডায়াবেটিক রোগের জন্যও ওট খুব উপকারী।

 

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।