অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ চোখের ও দৃষ্টিশক্তি নিয়ে আমাদের চিন্তা। রয়েছে নানা বিশ্বাস ও ধারণাও। এর কিছু হয়তো ঠিক, আবার কিছু ভুল। আসুন জেনে নিই সে রকম কিছু ধারণা। চোখ রগড়ানো ভালো নয়? কথাটা কিছুটা সত্যি।  জোরে জোরে চোখ রগড়ালে কর্নিয়ায় সামান্য ক্ষতি তো হতেই পারে, তার ওপর বেড়ে যেতে পারে ভেতরের চাপও। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বারবার বা দীর্ঘক্ষণ ধরে শক্ত হাতের তালু বা আঙুলের পেছন দিক দিয়ে চোখ রগড়ালে এমন চাপ প্রায় ২০ গুণ বেড়ে যেতে পারে। যাদের বারবার চোখ কচলানোর অভ্যাস, তাদের কর্নিয়ার আকৃতি পরিবর্তিত হয়ে খানিকটা লম্বাটে হয়ে যেতে পারে। একে বলা হয় কেরাটোকোনাস।

চোখ পরিষ্কার করতে বা চোখের প্রসাধন ওঠাতে জোরে জোরে না ঘষে তাই নরম তুলা বা গজ দিয়ে আলতোভাবে পরিষ্কার করা উচিত। কম আলোতে পড়লে চোখ নষ্ট হয়? মৃদু বা কম আলোতে পড়াশোনা করার সময় চোখের মণি নিজের আকার পরিবর্তন করে নেয় সুবিধার জন্য। কিন্তু এতে চোখের বা দৃষ্টিশক্তির কোনো স্থায়ী ক্ষতি হয় না। তবে অনেকক্ষণ মৃদু আলোতে পড়াশোনা করলে চোখের পেশিতে ক্লান্তি আসে। ফলে সাময়িকভাবে একটু অস্বস্তি, চোখ জ্বালা বা মাথাব্যথা করতে পারে। এটা চোখের সমস্যা নয়, এর ভেতরকার পেশির সমস্যা। আর এটি দ্রুতই আবার স্বাভাবিক হয়ে আসে। রোদের দিকে তাকানো ক্ষতিকর? হ্যাঁ, সূর্যালোকের অতিবেগুনি রশ্মি ত্বকের মতোই চোখের জন্যও ক্ষতিকর।এমনকি প্রখর আলোর রশ্মি চোখের তাৎক্ষণিক ক্ষতি করতে পারে। একে বলে একিউট ফটোকেরাটোপ্যাথি। এতে কর্নিয়া পুড়ে যায় ও প্রদাহ হয়। আর দীর্ঘমেয়াদিভাবে অতিবেগুনি রশ্মি চোখে ছানি, কর্নিয়ার প্রদাহ, এমনকি চোখে ক্যানসারও হতে পারে।

কম্পিউটারে বেশি কাজ করলে চোখের ক্ষতি হয়?  কম্পিউটার এমনিতে অতটা ক্ষতিকর নয়, তবে যাঁরা বেশি সময় ধরে কম্পিউটারে কাজ করেন, তাঁদের হ্রস্ব দৃষ্টিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেশি। এই কথা ছোটদের বেলায় বেশি প্রযোজ্য। কেননা, তাঁদের চোখের লেন্স আকার পরিবর্তন করতে পারে। নিকট-দৃষ্টি বেশি ব্যবহার করার দরুন তাঁদের লেন্স স্থায়ীভাবে এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে গিয়ে এই কাজ করে। ফলে পরে দূরের জিনিস ঝাপসা দেখায় ও চশমা লাগে। চশমা পরলে দৃষ্টি আরও কমে যায়! চশমা ব্যবহার করলে দৃষ্টিশক্তি আরও কমে যায় এবং যত দিন সম্ভব চশমা না ব্যবহার করেই থাকা উচিত বলে প্রচলিত ধারণাটা একেবারেই ভুল। আসলে প্রেসবায়োপিয়া বা চালশে রোগে বয়সের সঙ্গে দৃষ্টিশক্তি ক্ষীণ হয়ে আসে, ফলে চশমা ব্যবহার করতে হয়। চশমা সাময়িকভাবে সমস্যার সমাধান করে কিন্তু বয়সজনিত দৃষ্টিশক্তি ক্ষয় চলতেই থাকে। ফলে কিছুদিন পরপর চশমা পাল্টাতে হয়, আরও বেশি পাওয়ার নিতে হয়। সমস্যাটা চশমার নয়, আপনার বয়সের।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।