অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ ইন্টারপ্লাস্ট বাংলাদেশে বড় হাসপাতালগুলোতে বার্ন ইউনিট প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি ঢাকায় একটি পৃথক বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট স্থাপনের আশ্বাস দিয়েছে। ইন্টারপ্লাস্ট জার্মানি, ইন্টারপ্লাস্ট নেদারল্যান্ডস ও ইন্টারপ্লাস্ট হাঙ্গেরির ৯-সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল গতকাল  সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাতকালে এই আশ্বাস দেন। জার্মানির ডুয়িজবার্গের বিজিইউ হাসপাতালের প্রখ্যাত প্লাস্টিক, বার্ন ও হ্যান্ড সার্জারির সার্জন প্রফেসর ডা. হেইঞ্জ হার্বার্ট হোমান প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন। এসময় অধ্যাপক ডা. হাবিব মিল্লাত এমপি, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারির (এনআইবিপিএস) সম্মানিত উপদেষ্টা ডা. সামন্ত লাল সেন, ‘ফর বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন-জার্মানি’ এর সভাপতি ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ইঞ্জিনিয়ার হাসানাত মিয়া, এনআইবিপিএস-এর প্রধান ডা. আবদুল মান্নান এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের অবহিত করেন।

ডা. হোমান বলেন, জনসংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশ একটি বড় দেশ। অগ্নিদগ্ধদের ভালো চিকিৎসা দেয়ার জন্য এদেশে একটি পৃথক বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট স্থাপন করা যেতে পারে। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের কর্মকান্ডের প্রশংসা করে বলেন, এটি বিশ্বের বৃহত্তম বার্ন ইউনিট। দরিদ্র ও নিরীহ মানুষকে পেট্রোলবোমা মেরে হত্যার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরলে ডা. হোমান বলেন, এভাবে মানুষ হত্যা খুবই অমানবিক। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট তাদের তথাকথিত আন্দোলনের নামে প্রায় ১৫০ জন মানুষকে হত্যা করেছে, যা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।

এ প্রসঙ্গে ডা. হোমান বলেন, বাংলাদেশে নবনিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত আজ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিদর্শনকালে অগ্নিদগ্ধ রোগীদের দেখা পর তার চোখ থেকে অশ্রু গড়িয়ে পড়ে।  ডা. হোমান ইন্টারপ্লাস্ট ও বাংলাদেশের চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কর্মসূচি বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারির ওপর প্রশিক্ষণের ব্যাপারে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিনিধি দলের নেতা এক্ষেত্রে জার্মানি, হাঙ্গেরী, নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশের মধ্যে কর্মসূচি বিনিময় করা যেতে পারে বলে মতামত প্রকাশ করেন।  প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সরকার প্রাথমিকভাবে আরো দু’টি মেডিকেল ইউনিভার্সিটি স্থাপন করবে। চিকিৎসা খাতে উচ্চশিক্ষা নিশ্চিতকরণে সকল বিভাগীয় শহরে একটি করে মেডিকেল ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠারও পরিকল্পনা রয়েছে।

অধ্যাপক সামন্ত লাল সেন প্রধানমন্ত্রীকে জানান, বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জনদের সমন্বয়ে গঠিত এই ইন্টারপ্লাস্ট প্রতিনিধিদলটি গত ৪ এপ্রিল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ৪৪ জন অগ্নিদগ্ধ রোগীকে সার্জারি করেছে। প্রধানমন্ত্রী তাদেরকে ধন্যবাদ জানান এবং অগ্নিদগ্ধদের চিকিৎসা প্রদানে বিদেশ থেকে ছুটে আসার জন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ‘ফর বাংলাদেশ এসোসিয়েশন-জার্মানি’ এর সভাপতি ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ইঞ্জিনিয়ার হাসানাত মিয়া প্রতিনিধিদলের বাংলাদেশ সফরের আয়োজন ও সমন্বয় করেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।