অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ আমাদের দেশে  অতি পরিচিত ও সস্তা ও সহজলভ্য একটি ফল লেবু।   এটি পুষ্টিগুণে  যেকোনো ফলের চেয়ে উত্তম। লেবু উচ্চ রক্তচাপ কমায় লেবু সাইট্রাস পরিবারভুক্ত। লেবুতে আছে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি আর পটাশিয়াম। তবে ভিটাসিন সি আর পটাশিয়াম মিলে শরীরের উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। লেবুর পটাশিয়াম হৃৎপিণ্ডের কর্মক্ষমতাও বাড়ায়।লেবুর রসের ভিটামিন সি  মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দুর করে। মানসিক বিষন্তনতায় শারীরবৃত্তীয় কারণেই ভিটামিন সি-এর ঘাটতি দেখা দেয় দেহে। লেবুর রস সেটি পূরণ করে নিমেষেই চাঙা  করে দেয় মন।

লেবুর রস দাঁতের ব্যথা উপশমে সাহায্য করে। মাড়ি থেকে রক্ত পড়া বন্ধ করতে লেবু খুব কার্যকর। মুখের গন্ধ রোধেও লেবুর রস কার্যকর। আর দাঁতে প্লাক জমার কারণে যে অনাকাঙ্ক্ষিত দাগ পড়ে, তা সারাতেও লেবুর রস সাহায্য করে। রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে উল্লেখযোগ্য কাজ করে লেবুর রস।  লেবু ক্ষতিকর কোলেস্টেরল রাখে নিয়ন্ত্রণে। লেবুর রসে আছে ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী এক অনন্য বৈশিষ্ট্য, যার ফলে গলাব্যথা, মুখের ঘা আর টনসিলের সংক্রমণ রোধে সাহায্য করে লেবু। ত্বকের ক্ষত পূরণে লেবু কার্যকর। লেবু ত্বকে কোলাজেনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। ফলে ত্বক উজ্জ্বল হয় আরও। ত্বকের পোড়া ভাব যেমন দূর করতে পারে লেবু, তেমনি চোখের চারপাশের কালো দাগও মিলিয়ে দিতে পারে। সকালে খালি পেটে এক গ্লাস হালকা গরম লেবু পানি খেলে তা পেটের গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল নালীকে পরিশোধন করে। হজমক্রিয়াকে স্বাভাবিক করে, হার্টের বিভিন্ন ধরনের ব্যথা নিরসন করে এবং শরীরের যত বর্জ্য পদার্থ সেগুলোকে নির্মূল করে ফেলে। লেবুর পানিতে প্রচুর পরিমাণে সাইট্রিক অ্যাসিড আছে যা শরীরে এনজাইমের কাজকে ত্বরান্বিত করে। এছাড়া যকৃতের বিভিন্ন বিষাক্ত পদার্থ নির্মূল করে।

citrus limon

আমাদের অ্যাসিডিটির সমস্যা অনেক বড় ধরনের একটি সমস্যা। হালকা গরম লেবুপানি এই অ্যাসিডিটির সমস্যা নির্মূল করে ফেলে। লেবুতে প্রকৃতিগতভাবেই সাইট্রিক অ্যাসিড, নিউট্রিয়েন্টস, মিনারেল এবং কিছু ক্ষারীয় উপাদান রয়েছে যা অ্যাসিডিটির সমস্যা খুব সহজেই নির্মূল করে ফেলে। সাইট্রিক অ্যাসিডের ফলে দেহের বিভিন্ন বর্জ্য পদার্থ ঘামের মাধ্যমে শরীর থেকে বের হয়ে যায়। গবেষকরা বলেন, এই লেবু পানি রক্তের পিএইচ ভারসাম্যকে পরিবর্তন করতে সাহায্য করে এবং মূত্রনালীর বিভিন্ন সংক্রমণ প্রতিহত করে।

প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস হালকা গরম লেবু পানি খেলে তা দেহে ক্ষুধামন্দা তৈরি করে যার ফলে শরীরের ওজন কমে যায়। যারা অতিরিক্ত মেদ কমানোর জন্য ডায়েট করছেন তারা এই প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করতে পারেন। তবে কখনই অতিরিক্ত লেবু পানি খাবেন না এতে করে হিতে বিপরীত হয়ে যেতে পারে অর্থাৎ আপনার অ্যাসিডিটির সমস্যা অনেক বেশি বেড়ে যেতে পারে যা থেকে আলসারও হতে পারে।

গবেষকরা বলেন ভিটামিন সি ত্বকের মধ্যে এক ধরনের তারুণ্য ফুটিয়ে তোলে কেননা এটি ত্বকে কোলেজেন তৈরিতে সহায়তা করে থাকে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মরে যাওয়া ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করে পাশাপাশি সতেজ ও প্রাণবন্ত করে তোলে। এই হালকা গরম লেবু পানি রক্তপ্রবাহে থাকা বিভিন্ন টক্সিনও দূর করে ফেলে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।