অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ   যে কোন বয়সে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হতে পারেন । তবে যাদের ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভবনা বেশি থাকে :

১।বংশগত ডায়াবেটিসঃ  যেমন নিকট অত্মিয়র ডায়াবেটিস- বাবা-মা,ভাই-বোন,      ছেলে-মেয়ে, চাচা-ফুপু, মামা-খালা, দাদা-দাদি, নানা-নানি ।  ২।বয়ষঃ  বয়ষ বৃদ্ধির সাথে সাথে ডায়াবেটিস এর ঝুকি বাড়ে । ৩।ওজানাধিক্য/স্থুলতাঃ যাদের ওজন (BMI) ও কোমরের পরিধী বেশি । ৪।শারীরিক পরিশ্রমঃ যারা ব্যায়াম বা সারীরিক পরিশ্রম করেন না । ৫।গর্ভাবস্থাঃ  গর্ভকালিন সময় । ৬।মা ডায়াবেটিস গর্ভকালীন অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসে সন্তানের ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে । ৭।ঔষধঃ বহুদিন ধরে বিশেষ কোন কোন ঔষধ ব্যবহার করলে ।

ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের দীঘৃমেয়াদী জটিলতাগুলো যেহেতু একজন ডায়াবেটিস ব্যক্তির জীবনযাত্রার মানের ঘাটতি ঘটাতে পারে, সেহেতু নির্দিষ্ট বিরতিতে পরিক্ষা করে জটিলতাগুলো হলো কিনা তা দেখে নেওয়া উচিৎ । টাইপ-১ ডায়াবেটিস, ডোয়াবেটিস ধরা পড়ার সময়, ৫ বছর পর, প্রতি বছর একবার

ডায়াবেটিসে মানসিক পরিবর্তনঃ ডায়াবেটিসে মেলাইটাস একটি জীবনব্যাপী সমস্যা, যা ডায়াবেটিক ব্যক্তি ও তার পরিবারের উপরে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে ।শিশু বয়ঃসন্ধিকালে ডায়াবেটিস একটি শিশুর স্বাভাবিক মানসিক ও সামাজিক বৃদ্ধি ব্যাহত করতে পারে, আর তখন পারিবারিক জীবনে সৃষ্টি হতে পারে নানাবিধ জটিলতা ।এছাড়াও বয়স্ক ডায়াবেটিক ব্যক্তিরাও দৈনন্দিন জীবন জাপন করার সময় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নানা ধরনের বিপত্তির সম্মুখীন হয় ।আবার বিভিন্ন ধরনের ডায়াবেটিস জনিত জটিলতা একজন ব্যক্তির সুস্থতায় বিরুপ প্রতিক্রিয়া ফেলতে পারে । তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন ধাপগুলো জানা এবং তা দৈনন্দিন জীবন যাত্রায় মানিয়ে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ । পাশাপাশি একজন ডায়াবেটিস এডুকেটরকে তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন উপায় জানা ছাড়াও মানসিক ও আচরনগত পরিতর্তনে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়ার ব্যপারেও অভিগ্জ হওয়া প্রয়োজন ।

ডায়াবেটিস ধরা পড়ায় মানসিক প্রভাবঃ  ডায়াবেটিস সনাক্ত হলে তা ঐ ব্যক্তির মানসিক অবস্থার উপর মারাত্মক চাপ ফেলতে পারে । মানসিক চাপের ধরন যে সকল বিষয়ের উপর নির্ভর করে সেগুলো হল-

  • রোগীর বয়স

  • ডায়াবেটিস এর ধরন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা

  • প্রয়োজনীয় স্ব-পর্যবেক্ষণের ধরন

  • রোগ নির্ণয়ের সময় কোন জটিলতার উপস্থিতি

  • ডায়াবেটিস ছাড়াও অন্য কোন শারীরিক সমস্যা

ডায়াবেটিস  যে সকল মানসিক বিষয়াদি প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রন করেঃ  

  • ব্যক্তিত্ব

  • মেজাজ/ধৈর্য

  • স্বাস্থ্যব্যবস্থা সম্পর্কে বিশ্বাস

  • সামাজিক ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ

  • মানসিক অবস্থা

  • বুদ্ধিমত্তা

  • শিক্ষাগত অবস্থা

  • পারিবারিক দায়িত্ব

ডায়াবেটিস ধরা পড়ার প্রথমিক প্রতিক্রিয়াঃ 

  • ডায়াবেটিস ঐ ব্যক্তির জীবন এবং ভবিষ্যতের উপর কি প্রভাব ফেলতে পারে সে বিষয়ক উদ্বিগ্নতা

  • যা হয়েছে তার চেয়ে খারাপ কিছু হতে পারতো সে ধরনের আশ্বস্ত মনোভাব

  • ডায়াবেটিস যে সারা জীবনের সমস্যা তা বুঝতে না পারা

  • দুঃখ, বিষাধ ও অবিশ্বাস

পরামর্শের উদ্দেশ্য হলো

  • মেনে নেয়ার প্রক্রিয়ায় প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা

  • সময়োপযোগী পরামর্শ দিয়ে একজন ডায়াবেটিক ব্যক্তিকে নিরাপদ রাখা

  • এমন দৃষ্টিভঙ্গি তৈরিতে সাহায্য করা যা তাকে সাহসী হতে এবং সুন্দর ভবিষ্যত গরতে উদ্বুদ্ধ করবে

  • ভবিষ্যতের ব্যাপারে ইতিবাচক দৃষ্টি ভঙ্গি তৈরি করা এবং আশাবাদী হওয়ার ব্যাপারে প্রশিক্ষন ও উদ্বুদ্ধ করা

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।