অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, সরকার জনস্বাস্থ্যের উন্নয়নে চিকিৎসা সুবিধা বৃদ্ধি, শিক্ষা, খাদ্য নিরাপত্তা, স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নসহ ব্যাপক কর্মকা- বাস্তবায়ন করছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে আজ এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি এ কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’ পালিত হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন। দিবসটি উপলক্ষে ‘নিরাপদ পুষ্টিকর খাবার : সুস্থ জীবনের অঙ্গীকার’ নির্বাচিত প্রতিপাদ্যকে তিনি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে উল্লেখ করে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সুস্বাস্থ্য মানুষের অমূল্য সম্পদ। অর্থ, বিত্ত, বৈভব নয়; মূলত সুস্বাস্থ্যই পারে মানুষকে প্রকৃত সুখী করতে। তিনি বলেন, সরকার জনস্বাস্থ্যের উন্নয়নে চিকিৎসা সুবিধা বৃদ্ধি, শিক্ষা, খাদ্য নিরাপত্তা, স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নসহ ব্যাপক কর্মকা- বাস্তবায়ন করছে। দেশের প্রান্তিক মানুষের কাছেও এর সুফল পৌঁছে গেছে। ফলে রোগ-ব্যাধির প্রকোপ কমেছে, মা ও শিশুমৃত্যু উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পেয়েছে, মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে । রাষ্ট্রপতি বলেন, এ সাফল্য ধরে রাখার পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদি জটিল রোগের হাত থেকে রক্ষায় নিরাপদ ও পর্যাপ্ত পুষ্টিকর খাবারের গুরুত্ব অপরিসীম। সে লক্ষ্যে এবারের বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্যটি খুবই যথার্থ।

তিনি বলেন, অনিরাপদ ও অপুষ্টিকর খাদ্য গ্রহণে অনেক সময় দীর্ঘমেয়াদি জটিল স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি হয়, যা জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে বিরূপ প্রভাব পড়ে। এজন্য নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করা খুবই জরুরি। রাষ্ট্রপতি বলেন, সরকার জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ভোক্তা অধিকার আইনসহ ভেজাল রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য বিষয়ে সচেতন হওয়াসহ ভেজাল খাবার পরিহার ও মানসম্পন্ন খাবার গ্রহণে উদ্বুদ্ধ হবেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।