অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ প্রবীণদের এলজিমা রোগ এই রোগে মস্তিস্ক ও স্নায়ুর কার্যক্ষমতা দিন দিন লোপ পায়।  যার ফলে বিভিন্ন প্রকার মানসিক ও পরে শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

কাদের হয় : এই রোগ সাধারণতঃ বয়স্কদের (৬০ বৎসর) ও তদূর্ধ ব্যক্তিদের হয়।

রোগের কারণ 

  • বৃদ্ধ বয়স

  • বংশগত

  • মাথায় আঘাত

  • দুশ্চিন্তা

 লক্ষণ 

  • মানসিক অবসাদ ও সবকিছু ভুলে যাওয়া

  • দুশ্চিন্তা, মানসিক ভারসাম্য নষ্ট হওয়া, স্মৃতিশক্তি বিলুপ্ত হওয়া

  • খাবার প্রতি অনীহা

  • স্বাভাবিক কাজকর্মে উদ্দ্যমহীনতা

  • পারিবারিক ও সামাজিক আচরণ পরিবর্তন হওয়া

  • এছাড়া শারিরীক দুর্বলতা ও পুষ্টিহীনতার সাথে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য লক্ষণ সমূহ

 চিকিৎসা ও প্রতিকার 

এলজিমার রোগের চিকিৎসা ও প্রতিকারের মধ্যে নিম্নের বিষয়গুলি অনুসরণ যোগ্য:

  • রোগীকে মানসিক সান্ত্বনা দেওয়া ও দুশ্চিন্তামুক্ত রাখা

  • শারিরীক পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করা ও বাসস্থানের স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ নিশ্চিত করা

  • রোগীর প্রতি পরিবারের সকলের সহানুভূতি  সূচক ব্যবহার করা

  • লক্ষণ অনুযায়ী ঔষধ প্রয়োগ করা

  • রোগীকে সার্বক্ষনিকভাবে খেয়াল রাখা যেন বাসা থেকে হঠাৎ বের হয়ে না যান

 প্রতিরোধ 

  • নিয়মিত ব্যায়াম

  • সুষম খাদ্য গ্রহণ- এর মধ্যে চিনা বাদাম, আখরোট ইত্যাদি স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে

  • চিত্তবিনোদন

  • পারিবারিক সহচার্য

  • পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা

 চিকিৎসার জন্য যোগাযোগ 

  • মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়

  • বিশেষায়িত সরকারী/বেসরকারী হাসপাতাল

প্রশ্ন.১.এলজিমার রোগের কারণ কি? 

উত্তর.

  • বৃদ্ধ বয়স

  • বংশগত

  • মাথায় আঘাত

  • দুশ্চিন্তা

 প্রশ্ন.২.এলজিমার রোগের লক্ষণ গুলো কি কি? 

উত্তর.

  • মানসিক অবসাদ ও ভুলে যাওয়া

  • দুশ্চিন্তা, মানসিক ভারসাম্য নষ্ট হওয়া

  • খাবার প্রতি অনীহা

  • স্বাভাবিক কাজকর্মে উদ্দ্যমহীনতা

  • পারিবারিক ও সামাজিক আচরণ পরিবর্তন হওয়া

  • এছাড়া শারিরীক দুর্বলতা ও পুষ্টিহীনতার সাথে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য লক্ষণ সমূহ

 প্রশ্ন.৩.এলজিমার রোগ কিভাবে প্রতিরোধ করা যায়? 

উত্তর.

  • নিয়মিত ব্যায়াম

  • সুষম খাদ্য গ্রহণ-এর মধ্যে চিনা বাদাম, আখরোট ইত্যাদি স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে

  • চিত্তবিনোদন

  • পারিবারিক সহচার্য

  • পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা

 প্রশ্ন.৪.এলজিমার রোগের চিকিৎসার জন্য কোথায় যোগাযোগ করতে হবে? 

উত্তর.

  • মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়

  • বিশেষায়িত সরকারী/বেসরকারী হাসপতাল

সূত্র: প্রবীণদের ক্যান্সার,সিনিয়র সিটিজেনদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষণ মডিউল,স্বাস্থ্য অধিদপ্তর,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়,গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার.

 

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।