ডা: এম.এম. সরদার: ক্যান্সার একটি মারাত্মক ব্যাধি। এই ব্যাধিটি শরীরে দানা বাধলে চিকিৎসা ব্যবস্থার মাধ্যমে তা রোধ করা সম্ভব। কিন্তু এই ব্যাধিটি প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ করা আমাদের কর্তব্য। অনেকেই ক্যান্সার শব্দটি শুনে আতকে উঠেন। তবে একটি কথা বলে রাখি শুরুতেই ক্যান্সার ধরা পরলে এবং এর সুচিকিৎসা হলে অনেক ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীরা ভাল হয়ে উঠেন। ক্যান্সার প্রতিরোধের জন্য ইচ্ছাশক্তি ও প্রতিরোধের উপায়গুলো সম্পর্কে ধারণা থাকা একান্ত প্রয়োজন।

 ফরমালিন বিহীন ফলমূল, টাটকা শাক-সবজি, প্রচুর ভিটামিন সি জাতীয় খাদ্য গ্রহণ করলে ক্যান্সার আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা কম থাকে।
 ধুমপান, মদ্যপান, মাদকাসক্তি, জর্দা, সাদাপাতা, গুল, কিমাম, দোক্তা ইত্যাদি বিজাতীয় খাবার ও পানীয় পরিত্যাগ করতে হবে।
 ব্রেষ্ট ক্যান্সার থেকে মুক্ত থাকতে হলে, ৩০ বছর বয়স থেকে নিয়মিত নিজের ব্রেষ্ট পরীক্ষা করতে হবে।
 একাধারে দীর্ঘদিন জন্ম নিয়ন্ত্রণ বড়ি বা ইনজেকশন পরিহার করতে হবে।
 পুরুষ বা মহিলা উভয়েরই বহুগামিতা পরিহার করতে হবে।
 কৃত্রিম সারযুক্ত খাবার, দীর্ঘদিন পলিথিন মোড়ানো খাবার পরিত্যাগ করতে হবে।
 জরায়ু ক্যান্সার প্রতিরোধে সচেতন হতে হবে ও জরায়ু পরীক্ষা করতে হবে।
 শরীরের ছোট-খাট ক্ষত, ঘা, কাটা বিধলে বা কেটে গেলে সাথে সাথে এর সঠিক পরিচর্যা করুন।
 ঘরের ভেতর মশানাশক স্প্রে, অতিরিক্ত চুলে কলপ, মেকাপ, ক্ষতিকর পারফিউম ইত্যাদি পরিহার করতে হবে।
 পরিস্কার পরিচ্ছন্ন পোশাক, শরীরের যতœ, রুটিন মাফিক ঘুম ও খাওয়ার অভ্যাস জরুরী। পরিমিত সুষম খাদ্য গ্রহণ, শরীর চর্চা ও ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলতে হবে।
 ক্যান্সারের কোন লক্ষণ দেখা গেলে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হতে হবে।
উপরোক্ত বিষয়গুলোর সাথে ক্যান্সার রোগ সম্পর্কে ধারণা ও যথেষ্ট সচেতন থাকলে ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব। বর্তমানে ক্যান্সার আর অপ্রতিরোধ্য নয়। তাই ক্যান্সার প্রতিরোধে এগিয়ে আসুন ও সচেতন হউন।
ডা: এম.এম. সরদার
সরদার হোমিও হল
২১, গ্রীন কর্ণার, গ্রীণ রোড, ঢাকা।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।