অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  অড়বরই দেখতে কিছুটা আমলকীর মতো। কিন্তু আকারে আরেকটু ছোট, হলদে সবুজ রঙ। খেতে মোটেও আমলকীর মতো নয়, স্বাদ অনেকটা কামরাঙ্গা বা বিলম্বির মতো ফলটির নাম অড়বরই। বাংলাদেশে অঞ্চলভেদে একে নলতা, লেবইর, ফরফরি, নইল, নোয়েল, রয়েল, আলবরই, অড়বরি ইত্যাদি নামে ডাকা হয়।

টক স্বাদের পাকা অড়বরই ঝাল-লবণ দিয়ে মাখিয়ে খেতে ভীষণ মজা! এছাড়া এটা দিয়ে আচার, জুস, জেলি, চাটনি ইত্যাদিও তৈরি হয়। অনেকে এটা দিয়ে চমৎকার টক রান্না বা ভর্তা তৈরি করেন। অড়বরইয়ের রস ভিনেগার তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। অড়বরইয়ের রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণও! প্রতি ১০০ গ্রাম অড়বরইয়ে রয়েছে জলীয় অংশ ৯১.৯ গ্রাম, আমিষ ০.১৫৫ গ্রাম, চর্বি ০.৫২ গ্রাম, খাদ্য আশ ০.৮ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ৫.৪ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ১৭.৯ মিলিগ্রাম, আয়রন ৩.২৫ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ০.০১৯ মিলিগ্রাম, থায়ামিন ০.০২৫ মিলিগ্রাম, রিবোফ্লেভিন ০.০১৩ মিলিগ্রাম, নিয়াসিন ০.২৯২ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ৪.৬ মিলিগ্রাম। অড়বরইতে কোনো ক্যালরি নেই। তাই বিনা দ্বিধায় খেতে পারেন এ চমৎকার ফলটি। অড়বরইয়ের রয়েছে অনেক ঔষধিগুণ, যেমন লিভারের অসুখের টনিক বানানো হয় এর বীজ দিয়ে। পেটের অসুখ ও কৃমিনাশক হিসেবে এর বীজ ব্যবহার করা হয়। অকালবার্ধক্য রোধে ও ত্বকের রোগ প্রতিরোধে অড়বরইয়ের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। অড়বরইয়ের রস চুলের গোড়ায় লাগালে চুল মজবুত হয় ও খুশকি দূর হয়। মৌসুমি জ্বর প্রতিরোধে ও মুখের রুচি ফিরিয়ে আনতে ফলটি সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।