অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  জবা আমাদের দেশের অনেকেই বাড়ির আঙ্গিনা কিংবা বাসাবাড়ির ছাদের টবে নানা জাতের ফুলগাছ লাগিয়ে থাকি। এসব গাছের মধ্যে জবা একটি। জবা ফুল দেখতে খুব সুন্দর হলেও এর ঔষধি গুণ অনেক। জবা ফুলে নানা ঔষধি গুণাগুণ রয়েছে।  অনিয়মিত মাসিকের স্রাব, মাসিক ঋতুর অতিস্রাবে, চোখ ওঠা, মাথায় টাক পোকা, হাতের তালুতে চামড়া ওঠা ইত্যাদি রোগে ঔষধি গুণাগুণ রয়েছে।

বমি করতে চাইলে : হঠাৎ কোনো কুখাদ্য খাওয়া হয়ে গেলে, যেটা খেতে অভ্যস্ত নয়, যাকে বলা হয় অস্বাস্থ্য দ্রব্য, যেমন অজান্তে মাছি, চুল অথবা এই ধরনের কোনো জিনিস পেটে গিয়েছে, এর পরিণতিতে বমির উদ্রেগ হয় অথচ বমি হচ্ছে না; এক্ষেত্রে ৪-৫টি জবা ফুল নিয়ে বোঁটার সঙ্গে যে সবুজ ক্যালিকাস অংশ থাকে, ওই অংশটাকে বাদ দিয়ে ফুল অংশটাকে পানি ও চিনি পরিমাণমতো দিয়ে চটকে শরবত করে দিনে ২-১ বার খেলে বমি হয়ে পেট থেকে ওগুলো সব বেরিয়ে যাবে।

ঘন ঘন প্রস্রাব : যারা প্রচুর পরিমাণে পানি পান করে আবার ঘন ঘন প্রস্রাব করে অথচ ডায়াবেটিস রোগী নয়, এক্ষেত্রে জবা গাছের ছালের রস এক কাপ পানির সঙ্গে পরিমাণমতো চিনিসহ মিশিয়ে ৭-৮ দিন খেলে উপকার পাওয়া যায়।

অনিয়মিত মাজুরতা (মাসিকের স্রাব) : দু’-এক দিন একটু একটু হয়, আবার সময় হয়ে গিয়েছে আদৌ হয় না আবার হয়তো এক মাস বন্ধ হয়ে থাকল, এক্ষেত্রে দু’-তিনটি পঞ্চমুখী জবা ফুলের কুঁড়ি ও ৩-৪ ইঞ্চি দারুচিনি আধা অথবা এক গ্রাম এক সঙ্গে বেটে শরবত করে ক’দিন খেতে হয়। রসের সঙ্গে এক গ্লাস পরিমাণ পানি মিশিয়ে সকালে কিছু খাওয়ার পর মাজুরতা চলাকালীন দিনে একবার করে ৩-৪ দিন মাসিক স্বাভাবিক হওয়া অবধি খেতে হবে।

টাক পোকা রোগ : চুল স্বাভাবিক আছে অথচ ফাঙ্গাসে কিছু জায়গা চুল উঠে টাক হয়ে গেছে এ অবস্থায় জবাফুল বেটে ওখানে লাগালে কিছু দিনের মধ্যে চুল উঠে যাবে। এক-দুটো ফুল বেটে ৭-৮ দিন যে কোনো সময় লাগাতে হবে এবং দু’-এক ঘণ্টা রাখতে হবে অথবা যতক্ষণ সম্ভব রাখতে হবে।

চোখ ওঠা : চোখের কোণে ক্ষত হয়ে পুঁজ পড়ছে। সে ক্ষেত্রে জবা ফুল বেটে চোখের ভেতরটা বাদ দিয়ে চোখের উপর ও নিচের পাতায় গোল করে লাগিয়ে দিলে উপকার পাওয়া যায়। দিনের যেকোনো সময় এক-দুটো ফুল বেটে ৭-৮ দিন লাগাতে হবে এবং এক ঘণ্টা রাখতে হবে।

হাতের তালুতে চামড়া ওঠা : শীতকালে হাতের তালুতে চামড়া উঠে খসখসে হয়ে গেলে জবা ফুল তালুতে মাখলে খুব উপকার পাওয়া যায়। দিনে দু’-তিন বার এক-দুটো ফুল হাতের মধ্যেই আঙ্গুল দিয়ে ডলে ডলে লাগাতে হবে। লাগিয়ে স্বাভাবিক কাজকর্ম করা যাবে। যতক্ষণ সম্ভব রাখতে হবে।  চোখ উঠলে, মাথায় টাক পড়লে কিংবা হাতের তালু থেকে চামড়া ওঠা শুরু হলে, জবা ফুল বেটে রস লাগালে দ্রুত নিরাময় হয়। ডায়াবেটিসের রোগী নন, অথচ প্রচুর পরিমাণে পানি পান করার পরপরই ঘন ঘন যাদের মূত্র বিয়োগ করতে হয়, তারা জবা গাছের ছালের রস পানিসহ নিয়মিত কয়েকদিন এক চা চামচ পরিমাণ করে খেলে উপকার পাবেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।