অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ খিচুড়ি থেকে পরমান্ন, মুগ ডাল থেকে মাংস আমাদের রান্নার সব পদেই ব্যবহার করা হয় তেজপাতা। আর এই তেজপাতার ঔষধি গুণ প্রায় তুলনারহিত । তেজপতা অ্যানিট অক্সিডেন্ট হিসাবে যেমন কাজ করে তেমনি এর রয়েছে ফোলা কমানোর ও গুণ । তেজপাতা রক্ত পরিষ্কার করে এবং গলার খর খরে ভাব দূর করতেও এক ব্যবহার করা যায়। ইদানিংকালে নর্দামব্রিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী গবেষণা করে দেখেছেন, তেজপাতার মধ্যে স্মতিশক্তি বাড়ানোর গুণ ও রয়েছে। আলজাইমার্স রোগে মানষের স্মতিশক্তি নষ্ট হয়ে যায়। এ রোগের জন্য যে এনজাইমটি দায়ী তা প্রতিরোধ করার উপাদান রয়েছে তেজপাতায়। আলজাইমার্স রোগের উদ্দীপক অ্যাসিটাইকোলিন নামক নিউরোট্রান্সমিটারটি তেজপাতার থাকা উপাদান ভেঙ্গে দেয়। অনুঘটক হিসাবে কাজ করার সময় বিষাক্ত কিছু সুষ্টি করে যা শরীরের জেনাটিক কোড অর্থাৎ ডি এন  এ -কে আহত করে। কিছুদিন আগে সায়েন্স পত্রিকায় খবরটি প্রকাশিত হয়েছে। গবেষক দলের প্রদান আয়ন এ ব্লেয়ার বলেছেন, ভিটামিন-সি-পিল মানেই ক্যান্সার রোগের কারণ নয়। গবেষণায় ভিটামিন-সি পিল সম্পর্কেসতর্ক করে দিচ্ছে, এটা যেমন শরীর ভালো রাখে, তেমনি তা খারাপও কিছু করতে পারে। শরীর সম্পর্কে যারা সজাগ এবং ভালো রাখার চেষ্টা করেন তাদের এ পিল অতিরিক্ত না খাওয়াই ভালো । ওরিগ্রান স্টেট ইউনিভাসির্টির অধ্যাপক ব্লেয়ারের মতে, শরীর ভিটামিন সি-র চাহিদা মেটাতে সুষম আহারই সবচেয়ে ভালো উপায় । এ ক্ষেত্রে আদর্শ আহার হিসাবে বিশেষ করে উল্লেখ করা যায় লেবু জাতীয় ফল , সবুজ শাক-সবজি, শস্যদানা ইত্যাদি। অবশ্য পরীক্ষটা যেহেতু গবেষণাগারে টেস্ট টিউবে করা হয়েছে, তাই চূড়ান্ত সিদ্ধন্ত জানানোর আগে মানবদেহে তা বিশষ ভাবে পরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে বলে ব্লেয়ার মন্তব্য করেছেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।