অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ বাদাম আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয়। নান রোগ প্রতিরোধকারী হিসাবে বাদাম প্রমাণিত। সম্প্রতি আমেরিকার ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিষ্ট্রেশন (এফডিএ) বিভাগ স্বাস্থ্য সম্পর্কিত এক গবেষণায় এ তথ্য প্রকাশ করেছে। গবেষকদের মতে, প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট পরিমানে বাদাম খাওয়ার অভ্যাস করলে হৃদয়রোগসহ বিভিন্ন রোগের সম্ভাবনা কমে আসে।

বাদামের উপর বিভিন্ন ধরনের গবেষনা চালিয়ে বিভিন্ন জার্র্নালসহ সম্প্রাতি আমেরিকার হার্ট এসোসিয়েশনের জার্নালে বাদাম সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। এদিকে বেইজিং মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটিতেও বাদাম সম্পর্কে বিভিন্ন গবেষণা চালিয়ে একই ধরনের তথ্য প্রকাশ করেছে। এসব তথ্যের উপর ভিত্তি করে গবেষকরা জানান, অধিক কোলেষ্টেরাল থাকা কোনও হৃদরোগী নিজের কোলেষ্টেরালের মাত্রা নিয়ন্ত্রণের সঙ্গে স্বাস্থ্য সুস্থ ও সবল রাখতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে।

গবেষকদের মতে এক আউন্স বাদাম প্রতিদিন ৫/৬ বার করে নিয়মিত খেলে ডায়াবেটিস রোগীদের ওজন কিছু পরিমানে বৃদ্বি করলেও শরীরে ইনুসলিনের পরিমাণ হ্রাসে সহায়তা করে থাকে। শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষেত্রে বাদাম উপযোগী হিসাবে প্রামাণিত হয়েছে। ওজন কমানোর জন্য দৈনন্দিন নির্ধারিত খ্যাদ্য তারিকায় বাদাম নিঃসন্দেহে অন্তর্ভূক্ত করা যাবে বলে গবেষকরা জানান। বাদামে কার্বোহইড্রেটের পরিমান যথেষ্ট কম থাকে যার জন্য ওজন কমাতে হলে নিয়মিতভাবে নির্দিষ্ট পরিমাণে বাদাম খেলে ওজন হ্রাস পাওয়ার সঙ্গে স্বাস্থ্যও সুন্দর হয়।

বাদাম ক্যান্সারের মত মারতœক রোগের জন্য উপকারী। কালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে এক গবেষণায় তা প্রমাণিত ও হয়েছে। আমেরিকার ন্যাশনাল একাডেমী অব সায়েন্স-এ প্রকাশিত তথ্য মতে কেউ প্রতিদিন কম করেও ১৫ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘‘ই’’ খাদ্য থেকে পাওয়া উচিত,যা হয়ত প্রতিদিনের সাধারণ খাদ্য সামগ্রী থেকে পাওয়া সম্ভব নয়। এজন্য প্রতিদিন যাওয়ার পর এক আউন্স বাদাম খেলে শরীরের প্রয়োজনীয় ভিটামিন-ই-র পরিমান সঠিক থাকবে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।