অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  দরিদ্র জনগণকে স্বাস্থ্যসেবা দানের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। তিনি  বলেন গরীব মানুষেরা যেন অর্থাভাবে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। গতকাল রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘দরিদ্র জনগণকে চিকিৎসা সেবাদানের বিষয়টিকে অবশ্যই প্রাধান্য দিতে হবে। দরিদ্র মানুষেরা শুধুমাত্র টাকার অভাবে যেন চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত বা অবহেলিত না হয়, এ বিষয়টি আমাদেরকে নিশ্চিত করতে হবে।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, বিপুল জনগোষ্ঠীর জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা দেশের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কেননা, দেশে চিকিৎসক-রোগীর অনুপাত যথাযথ নয়। তাই জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে অবশ্যই চিকিৎসক ও নার্সের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, চিকিৎসা একটি মহান পেশা, কেননা, এটি জনগণের স্বাস্থ্যসেবা এবং জীবন রক্ষার সঙ্গে ওঁৎপ্রোতভাবে জড়িত।

আবদুল হামিদ বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞান একটি চির পরিবর্তনশীল বিষয় এবং নতুন নতুন রোগের প্রতিকারের মধ্য দিয়ে তা এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ ও অঞ্চল ভেদে রোগব্যাধির প্রকৃতি ও ধরন ভিন্ন। পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে রোগের প্রকৃতি ও ধরন পরিবর্তীত হতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ দুইটি বিষয় বিবেচনায় নিয়েই চিকিৎসা, শিক্ষা ও গবেষণা পরিচালনা করতে হবে। রাষ্ট্রপতি ক্যান্সার, হৃদরোগ, এইডস-এর মতো জীবনহানিকর ব্যাধি প্রতিরোধের ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করে তুলতে চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানান। কেননা, এসব রোগের চিকিৎসা যেমন ব্যয়বহুল, তেমনি সময় সাপেক্ষ।

তিনি স্বাস্থ্যসম্মত জীবন যাপনের জন্য সচেতনতা সৃষ্টির পরামর্শ দেন, কেননা, তা নিরাময়যোগ্য রোগ নিরাময়ে সহায়ক হবে। সমাবর্তন অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, বিএসএমএমইউ-এর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত। ভারতের লক্ষ্মৌতে অবস্থিত কিং জর্জ মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডা. রবি কান্ত সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন। ২০১৪ সালে যেসব শিক্ষার্থীরা এমডি, এমএস, এমফিল এবং বিএসসি ইন নার্সিং/ডিপ্লোমা উত্তীর্ণ হয়েছেন, তাদেরকে সমাবর্তনে ডিগ্রি প্রদান করা হয়। সমাবর্তনে তিনজন চিকিৎসককে শিক্ষাক্ষেত্রে তাদের অভূতপূর্ব সাফল্যের জন্য স্বর্ণপদক এবং সাতজন চিকিৎসককে সম্মানসূচক ‘ডক্টরেট’ প্রদান করা হয়।

সুত্রঃ বাসস

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।