অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ ভারতের ছত্তিসগড় রাজ্যে সরকারি এক বন্ধ্যাকরণ শিবিরে অস্ত্রপচারের পর আটজন মহিলা মারা গেছেন। আরো ৫৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে যাদের মধ্যে আরো অন্তত বিশ জন মৃত্যুর সাথে লড়ছেন। অস্ত্রপচারের পর পরই মহিলারা প্রচণ্ড ব্যথা এবং জ্বরের অভিযোগ করতে থাকেন। রাজ্য সরকার ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট ডাক্তার সহ চারজনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এই চিকিৎসকই গত বছর ৫০হাজার বন্ধ্যাকরণ অস্ত্রপচারের জন্য সরকারি পুরস্কার পেয়েছেন। শনিবার ছত্তিসগড়ের পেনডারি নামে একটি গ্রামে ৮৩ মহিলার ওপর টিউবেকটমি অর্থাৎ বন্ধ্যাকরণের জন্য অস্ত্রপচার করা হয়। জানা গেছে, মাত্র একজন ডাক্তার ছয় ঘণ্টার মধ্যে এতগুলো অস্ত্রপচার করেন। বন্ধ্যাকরণ শিবিরে এর আগেও ভারতে দুর্ঘটনা এবং হেলাফেলা করার বহু নজির রয়েছ। ২০১২ সালের জানুয়ারি মাসে বিহার রাজ্যে মাঠের ভেতর কোনো চেতনানাশক ছাড়াই দুঘণ্টায় ৫৩ মহিলার ওপর অস্ত্রপচার করার দায়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ভারতে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের অংশ হিসাবে সরকারি উদ্যোগে এ ধরণের বন্ধ্যাকরণ কর্মসূচি চালানো হয়। সাধারণত দরিদ্র পরিবারের মহিলারা পয়সার লোভে বন্ধ্যাকরণে রাজী হন।

সুত্রঃ বিবিসি

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।