রণবীর সিংকেই সেরা বন্ধু ও সঙ্গী বলে রায় দিলেন দীপিকা পাড়ুকোন৷ বরাবরই সাহসী দীপিকা৷  বয়ফ্রেণ্ডের হাত ধরে বেড়ানো হোক কিংবা সরাসরি চুম্বন৷ মিডিয়া তাঁর ব্যক্তিগত মুহূর্ত ফ্রেমবন্দি করলে বিলকুল ভয় পান না৷ রণবীর কাপুরের সঙ্গে ব্রেক-আপ বা রণবীর সিং-এর সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক নিয়ে লুকাছুপি কোনওদিনই করেননি৷ সম্প্রতি দীপিকার নতুন ছবি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’র সি্নিংয়ের সময় রণবীর-দীপিকাকে একসঙ্গে দেখা গেল৷ আলাদা আসায় দীপিকার জন্য গেটের কাছেই অপেক্ষায় দাঁড়িয়েছিলেন রণবীর৷ দীপিকা আসতেই মিডিয়ার ক্যামেরার সামনে পাক্কা দশ মিনিট ধরে পোজ দিলেন দু’জনে৷ তাঁদের ঘনিষ্ঠ পোজ দেখে স্পষ্ট, দুজনেরই গভীর প্রেমে হাবুডুবু অবস্হা৷ ক্যামেরার সামনে বরাবরই স্মার্ট রণবীর-দীপিকা৷ কিন্ত্ত অফসি্ন ক্যামেরার সামনেও প্রমাণ করলেন তাঁদের অটুট ‘কমর্ফট লেভেল’৷ জড়তাহীন সম্পর্ক৷ সি্নিং শেষে ফের দেখা গেল লাভ-বার্ডসদের৷ প্রচারমাধ্যমকে মুক্তঝরা হাসি উপহার দিয়ে রণবীরের গাড়িতে উঠলেন দীপিকা৷ রণবীরের সঙ্গে  যাচেছন নাইট আউটে৷ প্রথমেই রণবীরের গাড়ি থামল মুম্বইয়ে দীপিকার সবচেয়ে প্রিয় রেস্তোরাঁর সামনে৷ ডিনারে তাঁদের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ফের ফ্রেমবন্দি হল পাপারাত্জিদের ক্যামেরায়৷ সব বুঝেও কোনও আপত্তিই করলেন না রামলীলার জুটি! উল্টে তাঁদের স্বতঃস্ফূর্ততা দেখে অবাক হল মিডিয়াই৷ dipika-ranbir
দীপিকার সঙ্গে সময় কাটানো যাবে ভেবেই নাকি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’তে অতিথি শিল্পীর ভূমিকায় অভিনয় করতে রাজি হয়েছিলেন রণবীর৷ বলিউডে কানাঘুষো খবর, বিশেষ ওই চরিত্রের জন্য রণবীরকে নেওয়া হোক বলে দীপিকাই পরিচালকের কাছে আবদার করেছিলেন৷ শুটিংয়ের সময় চুটিয়ে আড্ডা মারতেন তাঁরা৷ রণবীরের শুটিং ছিল মাত্র দু’দিন৷ অথচ গোয়ায় ফাইন্ডিং ফ্যানির শুটিংয়ে তিনি কাটিয়েছিলেন সাতদিন! নিজের সব কাজ ফেলেই তিনি গোয়ায় গিয়েছিলেন৷ উদ্দেশ্য ছিল, অবশ্যই দীপিকার সঙ্গে ‘কোয়ালিটি টাইম’ কাটানো৷ রামলীলার সেট থেকেই শুরু তাঁদের এই সম্পর্ক৷ বহুবার মিডিয়ার সামনে নিজেদের আড়াল করলেও এত দিনে পুরোপুরি খোলস ছেড়ে বেরলেন তাঁরা৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।