দেশের রাষ্ট্রপতিকেই চিনতেন না তিনি। অথচ দাপিয়ে বেড়ান বলিউডে। বয়সটাও নেহায়েত কম নয়, ২১! কফি উইথ করনে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকেই ‘ভুল করে’ ভারতের রাষ্ট্রপতি বলে বসেছিলেন মহেশ ভাটের আদুরে কন্যা আলিয়া ভাট। তারপর থেকেই ফেসবুক ও টুইটার ভরে যায় আলিয়া ভাট জোকসে।
arjoon-kapoor-alia-bhatt
এতে কিন্তু রেগে গিয়ে হেরে যাননি আলিয়া। অনেক ভেবে চিন্তে ঠিক করলেন, যে করেই হোক তাকে জিনিয়াস হতে হবে। কিন্তু বুদ্ধি বাড়ানো তো মুখের কথা নয়। বুদ্ধিমানের কোচিংয়ে ভর্তি হলে কেমন হয়! আর আলিয়ার বুদ্ধিমান হওয়ার অভিযানটা নিয়ে ডকুমেন্টারি বানিয়ে ফেললেন শকুন বাত্রা। প্রামাণ্যচিত্রে অভিনয় করেছেন অর্জুন কাপুর, মহেশ ভাট, করন জোহর ও পরিনীতি চোপড়া। দেখা গেল, আলিয়া ভর্তি হয়েছেন ‘ডাম্ব বেল মেন্টালে জিম’-এ। যেখানে তার সকালের নাস্তা হলো ৩টি খবরের কাগজ!

আলিয়ার ছবি হাম্পটি শর্মা কি দুলহানিয়ার গান স্যাটারডে স্যাটারডে থেকে তৈরি হয়েছে ডকুমেন্টারির গান ফ্যারাডে ফ্যারাডে। রাধা অন দ্য ডান্স ফ্লোর হয়েছে হয়েছে সোডিয়াম অন দ্য ডান্স ফ্লোর। আলিয়া বলেন, “ইন্টারনেটে আমাকে নিয়ে কৌতুকে সয়লাব। তবে দুঃখ পাইনি, বরং হাসি পেত। আমি নিজেকে নিয়ে মজা করতে পারি। আমি মনে করি বুদ্ধিমানের অভিনয় করার চেয়ে বোকা হওয়াই ভাল।”

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।