ডেস্ক রিপোর্টঃ টাকা মানুষকে সুখী করতে পারে না। এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ হলে লটারিতে বিপুল অর্থজয়ী কোনো মানুষকে জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন। মানুষকে কোন জিনিসটি সুখী করতে পারে তা নিয়ে বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করে একটি সমাধানে পৌঁছেছেন। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার। এবার ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার বিজ্ঞানীরা ‘সুখের সন্ধানে’ দীর্ঘদিন গবেষণা করে একটি সমাধানে পৌঁছেছেন বলে দাবি করেছেন। এ গবেষণায় নেতৃত্ব দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির বিজনেস প্রফেসর ক্যামেরন অ্যান্ডারসন ও তার সহকর্মীরা।

গবেষকরা জানান, তারা বিষয়ভিত্তিক সুখ খুঁজে পেয়েছেন কারও স্ট্যাটাসভিত্তিক মানুষের গ্রুপের মাঝে (যাদের মাঝে মুখোমুখি যোগাযোগ আছে)। এর মধ্যে থাকতে পারে সহকর্মী, বন্ধু কিংবা প্রতিবেশী। বিজ্ঞানীরা এ বিষয়টিকে ‘স্থানীয় মই প্রভাব’ বলে বর্ণনা করেছেন। এতে দেখা যায়, কোনো একটি স্ট্যাটাসভিত্তিক গ্রুপে যারা অন্যদের তুলনায় সফল কিংবা ভালো অবস্থানে আছে, তারা অন্যদের চেয়ে বেশি সুখী। এ ধরনের ব্যক্তিদের সুখের মাত্রা অন্যদের চেয়ে বেশি হয়। আর এতে অর্থের তেমন কোনো ভূমিকা নেই। অন্যদিকে অর্থের সঙ্গে সুখের সম্পর্ক সেভাবে পাননি বিজ্ঞানীরা। বিশেষ করে লটারিতে অর্থ বিজয়ী ব্যক্তিরা অর্থপ্রাপ্তির পর কিছুদিন ঠিকই সুখী বোধ করেন। কিন্তু দ্রুত তাদের এ সুখ চলে যায়। এ বিষয়ে প্রফেসর অ্যান্ডারসন বলেন, ‘এটা সম্ভব যে সম্মান ও প্রভাব অর্জন করা ও সামাজিকভাবে অবস্থান গড়ে তোলার মতো বিষয় কখনোই পুরনো হয় না।’

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।