ছোট বড় সকলেই কিসমিশ খেতে পছন্দ করেন৷ এটিই হল সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর শুকনো ফল৷ এই কিসমিশ সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় বিভিন্ন ফুড সাপ্লিমেন্ট, ওষুধ ও মিষ্টি তৈরিতে৷ শুধু তাই নয় এই ড্রাই ফ্রুটের অনেক গুণও বর্তমান৷ তাই আপনাদের জন রইল কিসমিশের গুণাগুণ৷kismis
কিসমিশে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে তাই এটি শরীরের অতিরিক্ত জল শোষণ করে পাচন ক্রিয়ায় সাহায্য করে৷ এছাড়াও যারা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন তাদের ক্ষেত্রেও এটি বেশ কাজে দেয়৷
যারা স্বাস্থ্যকর পদ্ধতিতে শরীরের ওজন বৃদ্ধি করতে চান তাদের ক্ষেত্রে কিসমিশ সবচেয়ে ভাল উপায়৷ এছাড়াও এতে রয়েছে গ্লুকোজ ও ফ্রুক্টোস এবং এটি প্রচুর পরিমাণে শক্তিও প্রদান করে৷
কিসমিশ দাঁতের ক্ষয় রোধ করতে উপযোগী৷ এছাড়াও যদি দাঁতে অন্য কোন খাবার আটকে গিয়ে থাকে তবে কিসমিশ সেটিকে বের করতে সাহায্য করে৷
গবেষণায় দেখা গেছে কিসমিশ ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের প্রকোপ কম করতে সাহায্য করে৷
কিসমিশে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও ভিটামিন -বি কমপ্লেক্স থাকে ফলে এটি অ্যানিমিয়া সাড়াতে এবং নতুন রক্তকোষ সৃষ্টি করতে সাহায্য করে৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।