কথায় আছে জন্ম মৃত্যু বিয়ে তিন বিধাতা নিয়ে৷ কিন্তু এবার সে কথা বদলাতে বসেছে৷ জন্ম আর বিয়ের কথা বলা না গেলেও মাত্র একটা রক্তপরীক্ষার মাধ্যমে পাওয়া যাবে মৃত্যুর পূর্বাভাস৷ গবেষণা অনুযায়ী এক নতুন রক্তপরীক্ষাই জানান দেবে আগামী পাঁচবছরের মধ্যে আপনার মৃত্যুর আশঙ্কা আছে কিনা৷ ভাবছেন গাঁজাখুরি গপ্পো বানিয়ে বানিয়ে বলছি৷ একেবারেই না৷ নিউক্লিয়ার ম্যাগনেটিক রেসোন্যান্স (এনএমআর) স্পেকট্রোস্কোপির সহায়তায় রক্তে উপস্হিত জৈব নির্দেশকের পরিমাণের উপরই নির্ভর করবে মানুষের আয়ু৷Blood-Samples

গবেষকদের মতে, মানুষের  রক্তের নমুনায় যে জৈবনির্দেশক গুলির অস্তিত্ব পাওয়া যায় তা  বিচার করেই জানা যাবে, আপাতদৃষ্টিতে সুস্হ-সবল কোনো ব্যক্তি বাস্তবে শারীরিক ভাবে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন কিনা৷

গবেষকেরা ফিনল্যান্ড ও এস্তোনিয়ার প্রায় ১৭ হাজার মানুষের রক্তের নমুান সংগ্রহকে পরীক্ষা চালানোর পর এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন৷ পূর্ব ফিনল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এনএমআর মেটাবোলোমিক্স ল্যাবরেটরির প্রধান, পাসি সৈনিনেন জানিয়েছেন, “এই ধরনের গবেষণা বিশ্বে প্রথম৷ তবে চিকিৎসা জগতে এই নিয়ে আরও ইতিবাচক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো প্রয়োজন৷

এই গবেষণায় জানা গেছে রক্তে উপস্থিত মোট দুশোটি জৈবনির্দেশকের মধ্যে মাত্র চারটি মানুষের মৃত্যুর হারকে প্রভাবিত করে৷ এদের মধ্যে দু’টি প্রোটিন,  অ্যালবুমিন ও  আলফা-১ অ্যাসিডিক গ্লাইকোপ্রোটিন৷ তৃতীয়টি লিপিড জাতীয় বস্ত্ত এবং চতুর্থটি সাইট্রিক অ্যাসিড৷ প্রত্যেক মানুষের দেহে এই নির্দেশক গুলি উপস্থিত থাকলেও এর পরিমান এক রকম হয়না৷ ফলে বয়স, ধূমপান, অ্যালকোহল সেবন, কোলেস্টরল, উচ্চ রক্তচাপ, স্হূলতা , ডায়াবেটিস, ক্যান্সার, হৃদরোগ – ইত্যাদি মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী পরিচিত কারণগুলিকে চিহিত করতে এই জৈবনির্দেশকগুলির ভূমিকা অপরিসীম৷ রক্তপরীক্ষার মাধ্যমেই  মানুষের শরীরে এগুলির পরিমাণ এবং কার্য়কারিতা জানা যাবে এওবং এর সাহায্যেই জানা যাবে পরীক্ষাধীন রোগীর আয়ু কম না বেশি৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।