অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  ডাব আমাদের দেশের অতি পরিচিত একটি ফল। চার হাজার বছর আগ থেকে ডাব পুষ্টি প্রাপ্তির প্রকৃতির  একটি মহা মূল্যবান উপহার হিসেবে গণ্য হয়ে আসছে। ফলটি সত্যিকার অর্থেই পুষ্টির আধার। (৮০ গ্রাম) ডাবের পানিতে ক্যালোরির পরিমাণ ২৮৩, ২৭ গ্রাম ফ্যাট, সোডিয়াম ১৬ মি. গ্রাম, প্রোটিন ৩ গ্রাম, চিনি ৫ গ্রামসহ নানা খাদ্য উপাদানে সমৃদ্ধ। ডাবে প্রচুর এসিডও থাকে। নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে মুখে খাবারের স্বাদ ও বৈচিত্র্য পাওয়া যায়। এছাড়াও ডাবের পানি উচ্চ ইলেক্ট্রলাইটিস ক্ষমতাসম্পন্ন। যা ডায়রিয়া ও পানি শূন্যতায় ভোগার সময় মানুষকে সেসব থেকে পরিত্রাণ দিতে পারে। যাতে মানুষের স্বাভাবিক ওজন ঠিক থাকে অথবা বৃদ্ধি পায়। ডাবের পানি হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতেও তুলনাহীন। ডাবের পানি পান করলে ডায়াবেটিসের উন্নতি হয় এবং তীব্র ক্লান্তিতে কচি ডাবের পানি পান খুব সহজেই মানুষের শরীরে ফিরিয়ে আনে সতেজতা, কর্ম ক্ষমতা, নিয়মিত কর্মশক্তি বৃদ্ধি, ত্বকে নতুন প্রাণের সংহার  করতে খুবই কার্যকর কচি ডাবের পানি। ডাবের পানিতে বিদ্যমান পটাসিয়াম উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমায়।আধুনিক চিকিত্সা বিজ্ঞান বলছে ডাবের পানি সম্পূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াযুক্ত একটি পানীয়। এটি একমাত্র প্রাকৃতিক পানীয় যা আমাদের শরীরে নিরাপদে রক্ত প্রবাহ সঞ্চালনে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। তাই আপনি আপনার দৈনন্দিন ফলের তালিকায় ডাবকে সংযুক্ত করতে পারেন কোনো দ্বিধা ছাড়াই।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।