অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশসমূহে ক্যান্সারকে যথাক্রমে মৃত্যুর দ্বিতীয় ও তৃতীয় কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ক্যান্সার হলে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরের কোষ অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হয়ে চারপাশের টিসু এমনকি দূরবর্তী কোনো অঙ্গেও ছড়িয়ে পড়তে পারে। পরিণতিতে আক্রান্ত ব্যক্তি এক পর্যায়ে মৃত্যুবরণ করে। আমাদের দেশে স্তন, জরায়ু, অন্ত্রনালী, প্রোস্টেট, ফুসফুস, পাকস্থলি, ডিম্বাশয়, যকৃত, অন্ননালী, মুখগহ্বর, ত্বক প্রভৃতি অঙ্গের ক্যান্সার প্রায়শই পরিলক্ষিত হয়। ক্যান্সার প্রতিরোধে আমেদের পান-সুপারি, জর্দা, তামাকপাতা, ধূমপান ও মদ্যপান বর্জন করা।শারীরিক পরিশ্রম করে শরীরকে সচল রাখা। সময়মতো টিকা গ্রহণ করা (যেমন ‘হেপাটাইটিস) খাদ্য, ওষুধ ও কসমেটিক ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বন করা। পর্যাপ্ত উদ্ভিজ্জ খাবার (শাকসবজি, ফলমূল) এবং আঁশযুক্ত খাবার গ্রহণ করা। খাবারে অতিরিক্ত লবণ বর্জন করা।  ধূমপান ও মাদকবিরোধী আইন মেনে চলা ও বাস্তবায়ন করা।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।