পরিচালক দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় সবকটি ব্যোমকেশের স্বত্ত্ব কিনে ফেলেছেন একে একে সিনেপর্দায় তা নিয়ে আসার জন্য৷ শুরুটা তাই ব্যোমকেশের শুরু দিয়েই৷ সালটা ১৯৪০ ৷ ব্যোমকেশ সদ্য বেরিয়েছেন কলেজ থেকে৷ দৃঢ় ব্যক্তিত্ব, মাথা ঠান্ডা, মগজে উর্বর চিন্তাভাবনা৷ তথন কলকাতায় রাজনৈতিক অস্থিরতা৷ ভারতীয় স্বাধীনতার সংগ্রাম, প্রতিবাদ, মিছিল৷ ঠিক সেই সময়েই ধুতি, পাঞ্জাবী পরে চোখে গোল ফ্রেমরে চশমা দিয়ে বুদ্ধিদীপ্ত চেহারার ব্যোমকেশ হাজির প্রথম রহস্য উন্মোচন করতে৷byomkesh

পরিচালকজ দিবাকর মনে করেন, ‘আমার ছবির ব্যোমকেশ সুশান্ত সিং রাজপুতের মধ্যে এই ফ্রেশ ও বুদ্ধিদীপ্ত লুকটা রয়েছে৷ তাই বিনা দ্বিধায় ব্যোমকেশ হিসেবে ওকে ছাড়া অন্য কারও নাম মাথায় আসেনি৷’

সুশান্ত সিংকে এর আগের ছবি গুলিতে একেবারেই বলিউডের চকোলেট হিরোর লুকেও দেখা গিয়েছে৷ তা ‘কাই পো চে’ হোক বা শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স৷ ব্যোমকেশের মতো চরিত্র করতে পেরে খুশি সুশান্তও৷

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের শেষ থেকেই কলকাতার নানা জায়গায় তুমুল ব্যস্ততায় চলছে এই ছবির শ্যুটিং৷ ১৯৪০ –এর কলকাতাকে তুলে ধরতে কোনও খামতি রাখছেন না পরিচালক দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বাঙালির প্রিয় গোয়েন্দা ব্যোমকেশের ফার্স্টলুকেও সেই উদাহরণ চোখে পড়ার মতো৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।