মেয়ের খুনের বিচার চেয়ে অনলাইন ক্যাম্পেন শুরু করলেন জিয়া খানের মা রাবিয়া খান। তিনি মনে করেন মেয়ে আত্মহত্যা করেনি, প্রেমিক সুরজ পাঞ্চোলিই তাঁর মেয়েকে খুন করেছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে ঘটনার সঠিক তদন্ত দাবি করে পিটিশন দাখিল করেছেন রাবিয়া। এখনও পর্যন্ত ৫০ জন পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন। zia_khan

পিটিশনে রাবিয়া লিখেছেন, আমার মেয়েকে ৩ জুন, ২০১৩ খুন করা হয়। তারপর থেকে প্রচুর মেডিক্যাল ও বৈজ্ঞানিক রিপোর্ট দিয়েছেন ফরেনসিক চিকিত্সকরা যার থেকে এটা স্পষ্ট যে জিয়াকে খুন করা হয়েছিল। হাইকোর্ট মামলার পুনর্বিবেচনার নির্দেশ দিলেও পুলিস সহযোগিতা করছে না। সুরজ এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত। পুলিস কী কারণে ধামাচাপা দিতে চাইছে সেই কারণ পুলিসই সবথেকে ভাল জানে। খুনের সবথেকে বড় দুটো প্রমাণও পুলিস সামনে আসতে দিচ্ছে না। আমি সাহায্য চাইছি। আমি জানি আপনাদের আওয়াজই জিয়ার জন্য বিচার আনতে পারে। বম্বে হাইকোর্টে দাখিল করা পিটিশনে রাবিয়া লিখেছেন তদন্ত তড়িঘড়ি বন্ধ করা হয়েছে মনে করার যথেষ্ট জোরালো কারণ তাঁর কাছে রয়েছে।

গত বছর ৩ জুন তাঁর জুহুর ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় জিয়ার দেহ। আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় জিয়ার প্রেমিক অভিনেতা আদিত্য পাঞ্চোলির ছেলে সুরজ পাঞ্চোলিকে। ২০ দিন পর জামিনে মুক্তি পায় সুরজ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ ধারায় চার্জশিট ফাইল করেছে পুলিস।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Tags:

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।