কেন? ‘আরে! যত নষ্টের গোড়া অ্যাপেনডিক্স!’
ওটার জন্যই ড্যাডির লাডলি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ হাতছাড়া হয়ে গেল৷ তাই অ্যাপেনডিক্সের উপর বেজায় চটেছেন শ্রূতি৷ বাবা কমল হাসনের লেখা দ্বি-ভাষার ছবি ‘উথামা ভিলেন’-এ তাঁর সঙ্গে সি্ন শেয়ার করার জন্য মুখিয়ে ছিলেন শ্রূতি৷ কিন্তু শুটিং শুরুর কয়েকদিন আগেই অ্যাপেনডিক্স অপারেশনের জন্য তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়৷ এর বেশ কয়েকদিন পর হায়দরাবাদের হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান৷ Shruti-Hassanকিন্তু তখন অন্য ছবির শুটিং থাকায় বাবার ছবির জন্য ব্যস্ত শিডিউল থেকে একটা দিনও ফাঁকা বের করতে পারেননি৷ এদিকে কমলও শুটিংয়ের ক্ষতি করতে নারাজ৷   প্রফেশনাল কমল ছবি তৈরির সময় ব্যক্তিগত সম্পর্কের কথা মাথায় আনেন না৷ তাই শ্রূতি ডেট দিতে না পারায় তাঁকে বাদ দিয়ে নতুন এক অভিনেত্রীকে  নিয়ে নিয়েছেন৷ বাবার সিান্ত মেনে নিয়েছেন শ্রূতিও৷ তবে মুখে ‘প্রফেশনালিজম’-এর কথা বললেও বাবা-মেয়ে দু’জনেরই মন খারাপ৷ নিজেকে সা্ত্বLনা দিতে কমল বলছেন, “আমাদের দু’জনের ডেট না মেলায় শ্রূতিকে বাদ দিতে হল৷ কিন্তু একদিক দিয়ে ভালই হল৷ একসঙ্গে সি্ন শেয়ার করলে দু’জনের উপরেই খুব মানসিক চাপ থাকত৷ ও আর একটু অভিজ্ঞ হোক৷ তারপর একসঙ্গে অভিনয় করব৷” দক্ষিণের সুপারস্টার তুখোড় অভিনেতা বাবা কমল হাসনের সঙ্গে শ্রূতি একই ছবিতে অভিনয় করলে দর্শকরা তুলনা করতেনই৷ সেই তুলনা যে শ্রূতির কেরিয়ারে নেগেটিভ প্রভাব ফেলবে তা বিলকুল জানেন কমল৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।