সময়টা ১৯৯৫ সাল। সেই সময়ে বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শকের কাছে এক প্রিয় তারকার নাম ছিল সালমান শাহ। সালমানের সাথে যে নায়িকাই ছবি করেছেন তিনিই ছিলেন আলোচনায় কিংবা দর্শকের কাছে তিনিও হয়ে উঠতেন ভীষণ প্রিয়। ঠিক তেমনি একটি সুযোগ মিলেছিল পপিরও। ১৯৯৫ সালে লাক্স-আনন্দবিচিত্রা ফটোসুন্দরী হবার পর সালমান নিজে থেকেই পপির খোঁজ নিয়ে তার সাথে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সে সময় পাঁচের অধিক ছবিতে পপি সালমান শাহর সাথে কাজ করার জন্য চূড়ান্তও হয়েছিলেন। কিন্তু পপির সেই স্বপ্ন যেন স্বপ্নই রয়ে গেল। পরের বছরই পরপারে পাড়ি জমান সবার প্রিয় সালমান শাহ। সালমানের সাথে কাজ না করতে পারার সেই দুঃখ, আফসোস আজও রয়ে গেছে পপির মনের ভেতর।

পপি বলেন, ‘কার না প্রিয় ছিল সালমান শাহ। তিনি চলে গেছেন আজ থেকে প্রায় ১৮ বছর আগে। অথচ আজো সবার চেয়ে জনপ্রিয় তিনি। তার ছবিগুলো এখনো টিভির পর্দায় চললে দর্শক তা দেখেন। আমি যদি তার সাথে ছবিগুলোতে অভিনয় করতে পারতাম তাহলে আমার অভিনীত ছবিগুলোও হয়তো দর্শক দেখতেন।’popy-film-actress

চিত্রনায়িকা পপির এই আফসোস আজীবন থেকে যাবে। তবে নতুন বছরে তিনি নতুন ভালো ভালো কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। গত বছর বেশ কয়েকটি ছবির কাজ করলেও নতুন বছরে তিনি একটু বুঝে শুনে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন।

টেলিফিল্মে অভিনয় করার পূর্বে একটু ভেবে চিন্তে কাজ করবেন। কারণ এর আগে গত ঈদে তিনি একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলের একটি টেলিফিল্মে কাজ করেছিলেন যা পরবর্তীতে প্রচারের আগে ছয় পর্বের ধারাবাহিক নাটক হিসেবে চালিয়ে দেয়া হয়। যা প্রতারণা হিসেবেই আখ্যা দেন পপি।

চলচ্চিত্রে আগমনের পূর্বে তিনি শহীদুল হক খান পরিচালিত ‘নায়ক’ নাটকে ইলিয়াস কাঞ্চনের বিপরীতে অভিনয় করেন। মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ ছবি দিয়ে নায়িকা হিসেবে যাত্রা শুরুর পর এখন পর্যন্ত প্রায় দেড়শ ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে তার অভিনীত জীবন যন্ত্রণা, শর্টকাটে বড়লোক, পৌষ মাসের পিরীতি।

টি মন্তব্য

মন্তব্য বন্ধ

Tags:

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।