অনলাইন ইওর হেল্‌থ ডেস্কঃ  বাঁধাকপি একটি সুস্বাদু শীতকালীন সবজি। আমাদের দেশের ঘরে ঘরে একটি জনপ্রিয় খাবার এই বাঁধাকপি। এটি কাঁচা এবং রান্না দুইভাবেই খাওয়া যায়। স্বাদে ও গুণে অতুলনীয় এই সবজিটি বিশেষ পদ্ধতিতে চাষ করার কারণে মোটামুটি সারা বছরই পাওয়া যায়। তবে শীত কালীন বাঁধাকপির স্বাদ তুলনামূলক ভাবে অন্য সময়ের বাঁধাকপির চাইতে বেশি। শুধু স্বাদই নয় বাঁধাকপির রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ওজন কমানোর মত গুরুত্বপূর্ণ সব উপাদান। পুষ্টি বিজ্ঞানীদের মতে, প্রতি ১০০ গ্রাম বাঁধাকপিতে রয়েছে ১.৩ গ্রাম প্রোটিন, ৪.৭ গ্রাম শর্করা, ০.০৬মিলিগ্রাম ভিটামিন বি১, ০.০৫ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি২ ও ৬০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি। তাছাড়া প্রতি ১০০ গ্রাম বাঁধাকপিতে ৩১ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ০.৮মিলিগ্রাম লৌহ, ৬০০ মাক্রোগ্রাম ক্যারোটিন ও ২৬ কিলোক্যালোরীখাদ্যশক্তি থাকে। আসুন জেনে নেয়া যাক কোন ৬টি কারণে বাঁধাকপি খাওয়া উচিত। অনেকেই শরীরে ভিটামিনের অভাব দূর করার জন্য নিয়মিত মাল্টি ভিটামিন ট্যাবলেটখান। আপনি কি জানেন নিয়মিত বাঁধাকপি খেলে আপনার আর মাল্টি ভিটামিন খাওয়ারপ্রয়োজন হবে না। কারণ বাঁধাকপিতে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় সব ভিটামিনই আছে।বাঁধাকপিতে আছে রিবোফ্লাবিন, প্যান্টোথেনিক এসিড এবং থিয়ামিন । হাড় ভালো রাখে বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও কে আছে। ভিটামিন সি হাড়ের বিভিন্নসমস্যা দূর করে। এছাড়াও বাঁধাকপিতে উপস্থিত ভিটামিন কে হারকে মজবুত রাখে।যারা নিয়মিত বাঁধাকপি খায় তারা বয়স জনিত হাড়ের সমস্যা থেকে রক্ষা পায়। ওজন কমাতে সহায়ক খাবার বাঁধাকপিতে খুবই সামান্য কোলেস্টেরল ও সম্পৃক্ত চর্বি আছে। এছাড়াওবাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার আছে। ওজন কমাতে চাইছেন যারা তাদের জন্যনিয়মিত সালাদ খাওয়ার বিকল্প নেই। আর প্রতিদিনের সালাদের রাখুন বাঁধাকপি।

সালাদে প্রচুর পরিমাণে বাঁধাকপি থাকলে অতিরিক্ত ক্যালোরি বাড়ে না বললেই চলে। তাই ওজন কমাতে চাইলে নিয়মিত খাবার তালিকায় প্রচুর পরিমাণে বাঁধাকপিরাখুন। আলসারের সমস্যা কমায়

আলসার প্রতিরোধে বাঁধাকপি
যারা আলসারের সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা নিয়মিত বাঁধাকপি খাওয়ার অভ্যাস করুন।কারণ গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে বাঁধাকপি আলসার প্রতিরোধ করে। পাকস্থলির আলসারও পেপটিক আলসার প্রতিরোধে বাঁধাকপির জুড়ি নেই। স্ট্যানফোর্ডবিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে বাঁধাকপির রসআলসারের জন্য সবচেয়ে উপকারী প্রাকৃতিক ওষুধ।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
বাঁধাকপি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। আপনি যদি রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়িয়ে নিজেকে সুস্থ্য রাখতে চান তাহলে প্রতিদিনের খাবার তালিকায়বাঁধাকপি যোগ করুন।

গবেষণায় দেখা গেছে যে যারা নিয়মিত বাঁধাকপি খান তাদেররোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি। বাঁধাকপিতে উপস্থিত ভিটামিনসি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।

ত্বক ভালো রাখে
ত্বক ভালো রাখতে ভিটামিন ই এর জুড়ি নেই। আর বাঁধাকপিতে আছে প্রচুর ভিটামিনই। বাঁধাকপির ফ্রি র‍্যাডিকেল ফাইটিং প্রোপার্টি আছে যা ত্বকের যে কোনওসমস্যা সমাধান করতে সক্ষম। এছাড়াও নিয়মিত বাঁধাকপি খেলে ত্বকে সহজে বয়সেরছাপ পড়ে না। তাই যারা ত্বক ভালো রাখতে চান তাঁরা বেশি করে বাঁধাকপি খান।

এছাড়া বাঁধাকপির রয়েছে মূল্যবান ভেষজ গুণাগুণ। এর কাঁচাপাতা যদি আপনি রোজ 50 গ্রাম করে খেতে পারেন তাহলে আপনার পায়রিয়া এবং দাঁতের অন্য কোন সমস্যা থাকবে না৷

  •  প্রতিদিন বাঁধাকপির পাতা 50 গ্রাম খেলে আপনার মাথায় চুল গজাবে৷

  •  বাধাকপির রস খেলে ঘা সেরে যায়।

  • এক গ্লাস দই এর ঘোলের মধ্যে এক কাপ বাঁধাকপির রস, এক চতুর্থাংশ পালং শাকের রস মিশিয়ে প্রতিদিন দু বার পান করলে খুব অল্প দিনের মধ্যে আপনার কোলাইটিস সংক্রান্ত সমস্যা দূর হয়ে যাবে৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।