গোড়ালির ফাটল, বা পা ফাটা কেবল একটি সাধারণ সৌন্দর্যসংক্রান্ত সমস্যা এবং একটি বিরক্তিকর উৎপাত হতে পারে, কিন্তু এ থেকে আবার গুরুতর শারীরিক সমস্যাও সৃষ্টি হতে পারে৷ পায়ের তলায় গোড়ালির বাইরের দিকের চামড়া শক্ত, শুষ্ক হয়ে গেলে ও ছাল উঠতে থাকলে পা ফাটে, এবং মাঝে মাঝে এত গভীর ফাটল হয় যে ব্যথা করে বা রক্ত বার হয়৷ শীতকালে এ সমস্যা আরো প্রকট হয়ে দাঁড়ায়। আসুন এক নজরে দেখে নেয়া যাক এর প্রতিকার।

*নিয়মিত পা ময়েশ্চারাইজ় করলে গোড়ালি ফাটা আটকান যায়৷ একবার ফাটা দেখা দিলে, রোজ পিউমিস স্টোন দিয়ে ঘষে পুরু ও ফাটা চামড়ার স্তর আস্তে আস্তে কম করা যেতে পারে৷

* খালি পায়ে বা গোড়ালি খোলা জুতো, চটি বা পাতলা সোলওয়ালা জুতো পরে হাঁটা এড়িয়ে চলুন৷ ভাল শক অ্যাবজ়র্পশন ব্যবস্থা আছে এমন জুতো অবস্থাটিকে সারিয়ে তুলতে সাহায্য করবে৷Take-Care-of-Your-Feet-This-Winter-Step-4

*দিনে অন্তত দুবার পা ময়েশ্চারাইজ় করলে ও ঘুমোনর সময় ময়েশ্চারাইজ়ারের উপর মোজা পরে শুলেও উপকার হবে৷

*পা ফাটা (প্রতিরোধের জন্য প্রতিদিন সকালে গোসলের আগে পায়ে ভাল করে ১ চা চামচ তিল তেল বা নারকেল তেলের সঙ্গে ৩-৪ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল বা আমন্ড অয়েল, ১ চা চামচ গিস্নসারিন, ১ চামচ গোলাপ পানি, সিকি চামচ ভিনিগার মিশিয়ে নিয়ে পুরো হাতে, পায়ে, পায়ের পাতায় লাগিয়ে রাখুন মিনিট দশেক। সামান্য গরম ঠা-া পানিতে হাত-পা ধুয়ে নিয়ে আলতো করে ময়েশ্চারাইজার ও গ্লিসারিন মালিশ করে নিন।

*বাড়িতে সব সময় স্লি পার বা সুতির মোজা পরা অভ্যেস করুন।

* ১ চা চামচ পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে ১ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, ১ চা চামচ মধু, ২ চা চামচ গিস্নসারিন, ১ চা চামচ মুগডাল বাটা, ২ চা চামচ গোলাপ পানি দিয়ে পেস্ট বানিয়ে পুরো পায়ে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে হাল্কা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই প্যাক লাগালে পা ফাটা থেকে মুক্তি পাবেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।