Satellite_dishes1_copyনির্বাচনকালীন সরকারের মেয়াদে আরো ১৩টি প্রতিষ্ঠানকে টেলিভিশন চ্যানেলের লাইসেন্স দিতে যাচ্ছে সরকার। ১৩টি প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের নামের তালিকায় একজন বর্তমান মন্ত্রী, মহাজোট সরকারের একজন সাবেক প্রতিমন্ত্রী এবং সরকারি দলের একাধিক সংসদ সদস্য ও প্রধানমন্ত্রীর একজন উপদেষ্টা রয়েছেন। রয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের প্রধান আহমেদ আকবর সোবহানের ছেলে সায়েম সোবহানের নামও। তথ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সূত্র জানায়, এরই মধ্যে ১৩টি প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেয়ার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে এসেছে। সর্বশেষ পর্যায়ে তথ্য সচিবের দফতর থেকে মতামতসহ একটি সারসংক্ষেপ মন্ত্রীর দফতরে গেছে। সারসংক্ষেপে বলা হয়েছে, নির্বাচনকালীন সরকারের সময়ে লাইসেন্স প্রদান বিধিসম্মত ও যৌক্তিক কি-না এবং ভবিষ্যতে এ নিয়ে সমস্যা হবে কি-না বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া সমীচীন। তালিকায় আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের নামের পাশে তাদের পক্ষে সুপারিশকারীদের নামও লেখা রয়েছে।

নতুন টেলিভিশন চ্যানেলের লাইসেন্স পাওয়ার জন্য প্রক্রিয়াধীন ১৩টি প্রতিষ্ঠান হচ্ছে_ গ্রিন মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের গ্রিন টিভি (চেয়ারম্যান গাজী গোলাম দস্তগীর; বন ও পরিবেশমন্ত্রী হাছান মাহমুদের নাম সুপারিশকারী হিসেবে উল্লেখ আছে), ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের নিউজ টোয়েন্টিফোর (ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান), মিলেনিয়াম মিডিয়া লিমিটেডের তিতাস টিভি (ব্যবস্থাপনা পরিচালক ধানাদ ইসলাম দীপ্ত; সুপারিশকারী প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন তাজ), ঢাকা বাংলা মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন লিমিডেটের ঢাকা বাংলা টেলিভিশন (ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী), মিলেনিয়াম মাল্টিমিডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের মিলেনিয়াম টিভি (ব্যবস্থাপনা পরিচালক নূর মোহাম্মদ; সুপারিশকারী মমতাজ বেগম এমপি), নিউজ অ্যান্ড ইমেজের নিউ ভিশন টিভি (প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ আলমগীর; সুপারিশকারী সুকুমার রঞ্জন এমপি), বারিন্দ মিডিয়া লিমিটেডের রেনেসাঁ টিভি (চেয়ারম্যান শাহরিয়ার আলম এমপি), রংধনু মিডিয়া লিমিটেডের রংধনু টিভি (ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম ইব্রাহিম; সুপারিশকারী খালিদ মাহমুদ এমপি), বিএসবি ফাউন্ডেশনের ক্যামব্রিয়ান টেলিভিশন (চেয়ারম্যান লায়ন এম কে বাশার), জাদু মিডিয়া লিমিটেডের জাদু মিডিয়া টিভি (চেয়ারম্যান আনিসুল হক), মিডিয়া বাংলাদেশ লিমিটেডের আমার গান টিভি (চেয়ারম্যান তরুণ দে), ব্রডকাস্ট ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ লিমিটেডের চ্যানেল টোয়েন্টি ওয়ান (ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন কৌশিক) এবং এটিভি লিমিটেডের এটিভি (চেয়ারম্যান আব্বাস উল্লাহ)। একমাত্র চ্যানেল টোয়েন্টি ওয়ানের নামের পাশে কোনো সুপারিশকারীর নাম নেই এবং এটিভির নামের পাশে শুধু ‘চেয়ারম্যানবাড়ি’ শব্দটি লেখা রয়েছে।

এর আগে বর্তমান সরকারের আমলে ১৮টি নতুন টেলিভিশন চ্যানেলের লাইসেন্স অনুমোদন করা হয়। নতুন ১৩টি লাইসেন্স দেওয়া হলে এ সরকারের আমলে এ সংখ্যা দাঁড়াবে ৩১টিতে। সংশ্লিষ্ট সূত্র আরও জানায়, নতুন ১৩টি টেলিভিশন ছাড়া আরও ১৪টি বেসরকারি রেডিও স্টেশনের লাইসেন্স প্রদান প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। সূত্র: সমকাল

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।