dog_28308পশ্চিমা দেশে কুকুর পালন নিত্য নৈমিত্তিক। এমনও পরিবার আছে, যেখানে মানুষের সংখ্যার চেয়ে কুকুরের সংখ্যা বেশি। এসব কুকুর বেডরুম থেকে খাবার ঘর সবখানে প্রবেশাধিকার পেয়ে থাকে।

তবে এই কুকুর যখন হন্তারক হয়, তখন সেটিকে মর্মান্তিক বলতেই হবে। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের লিস্টেরশায়ারে এমনই পোষা কুকুর কামড়ে এক দম্পতির একমাত্র শিশুকন্যাকে হত্যা করেছে। খবর: ডেইলি মেইল’র।

লেক্সি নামের চার বছরের শিশুটির মারা যাওয়ার ঘটনা ছিল খুব নির্মম। বিশালাকৃতির কুকুরটিকে তার মা-বাবা কিছুদিন আগে কুকুরদের আশ্রয়কেন্দ্র থেকে এনেছিলেন। সে সময় তাদের বলা হয়েছিল, ‘এই কুকুর কোনো বাচ্চাকে আক্রমণ করে না।

ইংল্যান্ডের লিস্টেরশায়ার রাজ্যের মাউন্টসোরেল গ্রামে মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটেছে। ৬ থেকে ৭ হাজার বাসিন্দার ওই গ্রামে এ ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঘটনার দিন অসুস্থ বোধ করায় একটু আগেই বাসায় ফিরেছিল লেক্সি। কি কারণে যেন ওই কুকুরটি হঠাৎ করে তার ওপর লাফিয়ে পড়ে। নিজের চেয়ে দু-গুণ বেশি ওজনের শক্তিশালী কুকুরটির কামড় থেকে বাঁচার জন্য কি চেষ্টায় না করে মিষ্টি মেয়েটি। কিন্তু শক্ত কামড় থেকে সে নিজেকে কোনোভাবেই ছোটাতে পারছিল না!

কিছুক্ষণ পর মেয়ের চিৎকার শুনতে পেয়ে দৌড়ে আসেন লেক্সির মা। মা জোডি হাডসন (৩০) নিজের সর্বশক্তি দিয়ে চেষ্টা করছিল কুকুরটির মুখ থেকে মেয়েকে ছাড়ানোর। কিন্তু তার চোখের সামনেই দেখতে পাচ্ছিলো- কিভাবে তার প্রিয় মেয়েকে ছেঁড়া পুতুলের মত এদিক-ওদিক নাড়াচ্ছিল কুকুরটি!

চেষ্টা ব্যর্থ হবার পর দৌড়ে গিয়ে কিচেন থেকে ছুরি নিয়ে আসলেন জোডি। এবার কুকুরটির চোয়ালে একর পর আঘাত করতে থাকেন তিনি। যখন সফল হলেন, তখন রক্তাক্ত লেক্সি ফ্লোরে কাতর। মা ওই অবস্থায় মেয়েকে কোলে করে রাস্তায় দৌড়াদৌড়ির দৃশ্য দেখে প্রতিবেশীসহ সবাই রীতিমত ভড়কে গিয়েছিল।

তবে জোডির কোনো চেষ্টায় সফল হয়নি। হাসপাতালে নেয়ার আগেই কুকুরটির মুখে লেক্সি মারা গিয়েছিল। মায়ের সামনে একমাত্র মেয়ের এই করুণ মৃত্যু কার না হৃদয় ছুঁয়ে দিবে!

লেক্সির মা জোডি হাডসন হিস্টিরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শুধু বারবার একই কথা বলছেন, ‘আমাকে বলা হয়েছিল কুকুরটি বাচ্চাদের কাছে নিরাপদ।’

একমাত্র সন্তানকে হারিয়ে পুরো পরিবার এখন বিপর্যস্ত। তার উপরে সাংবাদিকদের চাপ। ফলে একটি সংবাদ বিবৃতিতে লেক্সির মা ও নানি অুনরোধ জানিয়েছেন, ‘লেক্সি ছিল তাদের পরিবারের উজ্জ্বল তারকা। তার অনুপস্থিতে আমরা একেবারে শূন্য। আমরা তাকে কখনোই ভুলতে পারব না। আমরা সব গণমাধ্যমগুলোর কাছে অনুরোধ করছি এই করুণ সময়ে তারা যেন আমাদের ও আমাদের বন্ধুদের একান্তে শোক পালন করতে দেন। তারা যেন আমাদের জ্বালাতন না করেন।’

লেক্সির পরিবারের পারিবারিক বন্ধু পল রায়ান ডেইলি মেইল- কে বলেন, ‘দু-মাস আগে কুকুরটিকে একটি আশ্রয় কেন্দ্র থেকে এনেছিলেন জোডি হাডসন। তখন তাকে বলা হয়েছিল- কুকুরটি খুবই ভদ্র।’

তিনি বলেন, ‘দেখে মনে হচ্ছে, কোনো কারণ ছাড়াই কুকুরটি হঠাৎ আক্রমণ করে বসে লেক্সির ওপর। এটা পাগল হয়ে যায় এবং লেক্সিকে কামড় মেরে আর ছাড়েনি।’

আর লেক্সির ঘটনাসহ এই বছরেই দেশটিতে বৈধ পোষা প্রাণির হামলায় তিনজন শিশু মারা গেলো। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, নিষিদ্ধ পোষা প্রাণির তালিকা বড় করার ইচ্ছে তাদের নেই।

তবে যেসব প্রাণি মানুষ মেরে ফেলে, তাদের মালিকদের বিপক্ষে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাবছে কর্তৃপক্ষ।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।