female starপশ্চিমা দেশগুলোতে সংগীত জগতে নারীদের ‘যৌনপণ্য’ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। শুধু তা-ই নয়, নারী তারকাদের পণ্য হিসেবে ব্যবহূত হতে বাধ্য করা হয়। আর নারীদের হেয় করার ব্যাপারটি এখন সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্রিটিশ সংগীত তারকা শারলট চার্চ এই মন্তব্য করেছেন।

গতকাল সোমবার বিবিসি অনলাইনের এক খবরে বলা হয়, বিবিসি আয়োজিত ষষ্ঠ বার্ষিক জন পিল লেকচারে দেওয়া বক্তব্যে শারলট চার্চ এই অভিযোগ করেন।

শারলট চার্চ বলেন, যখন তাঁর ১৯-২০ বছর বয়স, তখন একটি মিউজিক ভিডিওতে তাঁকে ‘উত্তেজক পোশাক’ পরতে বাধ্য করা হয়েছিল। একজন পুরুষ কর্মকর্তা তাঁকে ওই পোশাক পরতে বাধ্য করেছিলেন।

ব্রিটিশ সংগীত তারকা শারলট চার্চ। ছবি: বিবিসির সৌজন্যে২৭ বছর বয়সী এই চার্চ বলেন, ক্যারিয়ার ধরে রাখতে হরহামেশাই তরুণী শিল্পীরা খোলামেলা পোশাক পরে যৌন উত্তেজক আচরণ করতে বাধ্য হচ্ছেন। তিনি বলেন, এ কারণে সংগীত শিল্প (মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি) বিতর্কের মুখে পড়েছে। এ ক্ষেত্রে তিনি পপস্টার মাইলি সাইরাস ও রিহানার উদাহরণ টানেন।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।