ঈদ মানেই নতুন পোশাক। নানা উপকরণে নানা ঢঙে রঙিন পোশাকের মেলা। সেই মেলার কিছু নমুনা নকশার পাঠকদের জন্য—

Shokh-Bangladeshi-Model-Actress_WBRI_5

আড়ং
আর্ট ডেকো শিরোনামে সালোয়ার কামিজের সংগ্রহ এনেছে আড়ং। এমব্রয়ডারি, অ্যাপলিক, নকশাদার বোতাম, জারদৌসি বর্ডার দিয়ে কাজ করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল শাড়ি কুটির
টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী তাঁতের শাড়িতে নানা নকশা করা হয়েছে। উজ্জ্বল রংগুলোই প্রাধান্য পেয়েছে।

অঞ্জন’স
দেশীয় তাঁত, সুতি, সিল্ক, অ্যান্ডি সুতি, অ্যান্ডি সিল্ক, হাফসিল্ক, মসলিন কাপড় দিয়ে তৈরি পোশাকে রয়েছে বৈচিত্র্যের সমাহার। সবুজ, বাদামি, নীল, সাদা, মেরুন, লাল, ম্যাজেন্টা, বেগুনি, কালো ইত্যাদি রং ব্যবহার করা হয়েছে পোশাকে।

মৃন্ময়ী
শাড়িতে ব্লকপ্রিন্ট, এমব্রয়ডারি, অ্যাপলিক, লেস, চুমকির কাজ করা হয়েছে। আরামদায়ক কাপড় ব্যবহার করা হয়েছে।

কীত্তনখোলা
আরামদায়ক কাপড়ে উজ্জ্বল রঙের ব্যবহারে পোশাক তৈরি করেছে কীত্তনখোলা। চুমিক, লেস, পাইপিং ব্যবহার করে নকশা করা হয়েছে।

চরকা
চরকা এবার নানা উজ্জ্বল রঙের ব্যবহার করেছে পোশাকে। দিনের বেলায় পরার জন্য আছে চাপা সাদা, সোনালি, লেবু, সাদা, ছাইবর্ণ ও প্যাস্টেল শেডের শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, কুর্তা, শুধু সালোয়ার ও ওড়না। পোশাকে কারচুপি, অ্যাপ্লিক, ব্লক, এমব্রয়ডারি, পুঁতির ব্যবহারও থাকছে।

আইরিসেস
আইরিসেস এবার মটকা শাড়িতে পার্সি এমব্রয়ডারি করা পাড় বসানো শাড়ি এনেছে। এই শাড়িগুলো বিভিন্ন রঙের। এ ছাড়া সিল্ক, শিফন, কোটা, লেইস, জামদানি শাড়িও পাওয়া যাবে আইরিসেসে। শাড়ি ছাড়াও আইরিসেস এনেছে জমকালো ব্লাউজ।

বাংলার মেলা
অরগানজা, সিল্ক, অ্যান্ডির নানারকম কাপড়ে তৈরি পোশাক আছে। কাতান পাড়, পাইপিং ব্যবহার হয়েছে শাড়িতে। সালোয়ার-কামিজে কারচুপি, এমব্রয়ডারি ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যমেলা
জমকালো পাঞ্জাবি, শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ ও ফতুয়া এনেছে অন্যমেলা। গাঢ় ও উজ্জ্বল রঙের পোশাকে আছে উৎসবের আবহ। এমব্রয়ডারি. লেস, চুমকি ইত্যাদি মাধ্যমে কাজ করা হয়েছে।

টেক্সমার্ট
জয়সিল্ক, অ্যান্ডি সুতি, মসলিন, কাতান, সুতি কাপড়ে তৈরি হয়েছে পোশাক। রঙে থাকছে উৎসবের আমেজ। কাজের মাধ্যম হিসেবে থাকছে প্রিন্ট, এমব্রয়ডারি, কারচুপি, জারদৌসি, অ্যাপলিক ইত্যাদি।

তহুস ক্রিয়েশনস
ফ্যাশন হাউস তহু’স ক্রিয়েশনস এনেছে উৎসবধর্মী সব পোশাক। রয়েছে শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া, টপস ও পাঞ্জাবি। সালোয়ার-কামিজের গলা ও হাতে নানা নকশা করানো হয়েছে।

আবর্তন
হালকা রঙের কাপড়ে নানা মাধ্যমে কাজ করা হয়েছে। গোলাপি, নীল, বেগুনি এসব রঙের হালকা শেড ব্যবহার করা হয়েছে পোশাকে।

দর্জি
নানা ধরনের এমব্রয়ডারির ব্যবহারে জমকালো সব সালোয়ার-কামিজ এনেছে দর্জি। কাতান পাড়, লেস, চুমকি ও পুঁতির ব্যবহার হয়েছে পোশাকে।

এম ক্র্যাফট
পোশাকে ব্লকপ্রিন্ট, এমব্রয়ডারি, কারচুপির ব্যবহার করা হয়েছে। জমকালো নকশার পোশাকে ব্যবহার হয়েছে কাতান কাপড়।

অ্যাঞ্জেলিনা কালেকশন
অ্যাঞ্জেলিনা কালেকশন প্রতিটি নকশায় একটি করে পোশাক তৈরি করেছে। প্রাচীন অ্যামিশ সভ্যতা ও সংস্কৃতির মোটিফে পোশাক তৈরি করা হয়েছে।

গ্রামীণ মেলা
সুতি, অ্যান্ডি, কোটা এসব আরামদায়ক কাপড় ব্যবহার করে শাড়ি, সালোয়ার কামিজ এনেছে গ্রামীণ মেলা। পোশাকে হালকা ও উজ্জ্বল রং ব্যবহার করা হয়েছে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।