প্রতিদিন একটু ব্যায়াম করলেই কি স্লিম হওয়া যায়?না৷ তাতে বড়জোর বর্তমান ওজন ধরে রাখা যায়৷ যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্লিম এবং সুস্থ শরীর চাইলে ব্যায়ামের সঙ্গে নিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাসের কোনো বিকল্প নেই৷download (32)

মেদহীন টানটান একটা শরীর কে না চান! বেশি চান তাঁরা, আরাম-আয়েস আর ভোজনবিলাস যাঁদের শরীরে মেদ জমিয়ে জমিয়ে জীবনকেও দাঁড় করিয়েছে ঝুঁকির মুখে৷ এ অবস্থায় অনেকেই নেমে পড়েন ব্যায়াম করে মেদ ঝরানোর চেষ্টায়৷ পাশাপাশি খাওয়া-দাওয়াও চলে মোটামুটি আগের মতো৷

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি একেবারেই কার্যকর ব্যবস্থা নয়৷ বিশেষ করে সপ্তাহে ১৫০ মিনিটের মতো ব্যায়াম করে মেদ ঝরানোর যে প্রচলিত ধারণাটি রয়েছে, তাকে একরকম হাস্যকরই বলছেন তাঁরা৷

অ্যামেরিকান কলেজ অফ স্পোর্টস মেডিসিনের অনুশীলন শরীরতত্ব বিশেষজ্ঞ ড. জোসেফ ডোনলি বলেছেন, এতে শুধু হৃদরোগকেই দূরে রাখা যেতে পারে আর কিছু নয়, ‘‘এটা আসলে ওজন কমানোর ব্যবস্থা নয়৷ ওজন কমাতে গেলে সপ্তাহে ২৫০ থেকে ৩০০ মিনিট অন্তত ব্যায়াম করতেই হবে৷ সপ্তাহে মোট ১৫০ মিনিট ব্যায়াম করে বড়জোর এখনকার ওজনটাকে ধরে রাখা যাবে৷”

যুক্তরাষ্ট্রের অবার্ন ইউনিভার্সিটি মন্টগোমারির অধ্যাপক ড. মিচেল ওলসন বুঝিয়ে বলেছেন ব্যাপারটা, ‘‘এক পাউন্ড স্নেহ জাতীয় খাদ্য খেলে আমাদের শরীরে সাড়ে তিন হাজার ক্যালরি যোগ হয়৷ তারপর আপনি যদি ম্যারাথন দৌড়বিদদের মতো পুরো ২৬ মাইলও দৌড়ান, তাতে প্রতি মাইলে ১০০ গ্রাম হিসেবে সব মিলিয়ে মাত্র ২৬০০ ক্যালরি ঝরাতে পারবেন৷ সেই এক পাউন্ডের কারণে পাওয়া ক্যালরি থেকে ৯০০ ক্যালরি কিন্তু থেকেই যাবে৷”

তাই প্রতিদিন ৪০ থেকে ৫০ মিনিট ব্যায়াম বা ঘাম ঝরানোর মতো অন্য কিছু করার পাশাপাশি খুব সাবধানে খাওয়া-দাওয়া করারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷ একটু ব্যায়াম করে, হেঁটে, সাইকেল চালিয়ে বা সাঁতার কেটেই মেদ কমিয়ে ফেলবেন – এমন ভাবাটা মস্ত বড় ভুল৷

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভুলের এ স্বর্গে বাস করা মানে মেদবহুল দেহের যন্ত্রণাকেই মেনে নেয়া৷

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।