06f4d8ddcc974388feac7ae7d7dafd89সিক্যুয়েলের পালা ২০১৩-এর শুরু থেকেই কেমন বেশ রমরমিয়ে চলছে। সেই পালা চলবে ২০১৪-তেও। এক সময়ের বিখ্যাত ছবি ‘দিওয়ানা’ এবং ‘সাজন’ ছবির সিক্যুয়েলও যে ২০১৪-তেই দর্শকদের কাছে পুনরায় উপস্থাপিত হওয়ার তোড়জোড় চলছে। প্রশ্ন হল, বেছে বেছে এই দুটো ছবিই কেন? একদিকে ইন্ড্রাস্ট্রিতে সদ্য আগত শাহরুখ খান, আর তৎকালীন হিট নায়িকা দিব্যা ভারতী আর ঋষি কপূরকে নিয়ে ‘দিওয়ানা’ ছিল গানে গল্পে জবরদস্ত হিট ছবি। পাশাপাশি সলমন খান, সঞ্জয় দত্ত আর মাধুরীর ত্রিকোণ প্রেমের ট্যুইস্ট নিয়ে ‘সাজন’-ও কম পাগল করেনি তখনকার দর্শকদের। আবার সেই পাগলামি ফিরিয়ে আনতেই ফের এই দুটি ছবি ২০১৪-তে প্রেক্ষাগৃহে আসছে। গুড্ডু ধানওয়া যেমন ‘দিওয়ানা’ ছবিটিকে নিয়ে নতুন করে ঘষে-মেজে উপস্থাপনার পরিকল্পনা করেছেন, তেমনই অন্যদিকে লরেন্স ডিসুজা ‘সাজন’ ছবিটিকে পুরনো স্বাদ-গন্ধে মাখামাখি করেই আনতে চলেছেন। সব মিলিয়ে নতুন গুড়ের গন্ধে পুরনো মেজাজ ফিরিয়ে আনার রকম চলার কথা বলিউডে।

১৯৯২ সালে রাজ কানওয়ারের ‘দিওয়ানা’ রোম্যান্টিক ছবির বাজারে বেশ হিট ছিল। পাশাপাশি এই ছবির গানও বেশ মাতিয়ে রেখেছিল। আপাতত সেই রোম্যান্সেই নাকি গা ভাসাচ্ছেন পরিচালক গুড্ডু ধানওয়া। যদিও পরিচালক নিজে সে কথা স্বীকার করতে রাজি নন। বরং জানাচ্ছেন, ‘আমি একটা রোম্যান্টিক ছবির প্ল্যান করেছি। আর কাকতালীয় ভাবে সেই ছবির নাম দিওয়ানা। কিন্তু পুরনো দিওয়ানার সঙ্গে এর কোনও মিল নেই। এটি পুরোপুরি নতুন একটা প্রেমের ছবি। এটা রোম্যান্টিক থ্রিলার বলা যায়। কোনও সিক্যুয়েল নয়’। আপাতত স্ক্রিপ্টের কাজ শেষ। এখন নায়ক-নায়িকা বাছাই পর্ব চলছে। কিন্তু সেই স্ক্রিপ্টের খানিকটা আভাসে নাকি পুরনো দিওয়ানার ছোঁওয়া ভালই মিলছে বলে শোনা গেল।

অন্যদিকে সিক্যুয়েল করা নিয়ে বিশেষ আপত্তি নেই পরিচালক লরেন্স ডিসুজার। তাই ১৯৯১ সালের হিট রোমান্টিক ‘সাজন’ নিয়ে পুরোদমে সিক্যুয়েলে মেতেছেন তিনি। তিনি জানাচ্ছেন, ‘স্ক্রিপ্টের কাজ শেষ। ছবির মূল ভাবনা একই থাকবে। সেটা দুই নায়ক আর এক নায়িকার মধ্যে ত্রিকোণ প্রেমের গল্প। এই ছবিতে আমরা বিখ্যাত কিছু অভিনেতা চাই। পাশাপাশি নতুনরাও কাজ করবে। ইতিমধ্যেই কয়েকজনকে ভাবাও হয়ে গেছে। বাকিটা দেখা যাক’। পুরনো ‘সাজন’ ছবিতে রোম্যান্সের সঙ্গে চির বন্ধুত্বের যে আখ্যান ছিল তাও বাদ দেবেন না লরেন্স। অনাথ আশ্রমের ছেলে সঞ্জয় দত্ত নতুন বাবা-মা এবং বন্ধুর জন্য প্রেমকে বিসর্জন দিতে প্রস্তুত ছিল। কিন্তু ভাই এবং বন্ধুর এই আত্মত্যাগের বিরুদ্ধে সলমনের প্রতিবাদ- সব মিলিয়ে গানে-গল্পে সে ছবি সেই সময়ের অন্যতম হিট। কিন্তু মাল্টিপ্লেক্সের প্রেমের যুগে এমন রোম্যান্স আদৌ কতটা বাজার করবে? ‘প্রেমের সংজ্ঞা চিরকাল এক। তাই সাজন আমার খুব প্রিয় ছবি। আমার মনে হয় এই ছবি আবারও হিট হবে। তবে হ্যাঁ সময়ের সঙ্গে যে ট্যুইস্ট এসেছে রিলেশনে তাও আমি দেখাব’, জানাচ্ছেন পরিচালক। এবার কতটা মুগ্ধ হন দর্শকরা, তা তো সময়ই বলবে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।