সংসার-সন্তান সামলানো আপাতদৃষ্টিতে সহজ মনে হলেও এ হ্যাপা সামলাতে নারীকে যেতে হয় বহু জটিলতার মধ্য দিয়ে। চাপ সহ্য করতে হয় মানসিক এবং শারীরিকভাবে। নানা জটিলতা ও চাপের মধ্যে সেরিব্রাল কর্টেক্স চায় পর্যাপ্ত বিশ্রাম। কিন্তু এক নারী তার সারাদিনের কর্মব্যস্ততার মধ্যে কতটুকু বিশ্রাম নেন? যতটুকু দরকার ততটুকু ঘুম কি তিনি ঘুমাতে পারেন? মার্কিন এক গবেষণায় দেখা গেছে, রাতে গড়ে পুরুষ যতক্ষণ ঘুমান, নারীর প্রতি ঘণ্টায় তার থেকে ২০ মিনিট বেশি ঘুমানো প্রয়োজন। রাতের পরিপূর্ণ ঘুম পরদিন তাকে এনে দেবে সতেজ ভাব। ফুরফুরে অনুভূতি। আর দিনে যদি ক্লান্ত লাগে তাহলেও আধ ঘণ্টা, এক ঘণ্টা ঘুমিয়ে সেই ক্লান্তিভাব দূর করে নিতে পারেন যে কেউ।
মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে তথ্য প্রকাশ করেন, রাতে পর্যাপ্ত ঘুম একজন নারীকে পরদিন সারাদিন ফুরফুরে মেজাজে রাখে। বিবাহিত জীবন থেকে শুরু করে ঘরের কাজও তিনি উপভোগ করেন। করতে পারেন সুশৃঙ্খলভাবে। ৯০০ নারীর ঘুমের ওপর গবেষণা করে দেখা যায়, যারা এক ঘণ্টা বেশি পরিপূর্ণ ঘুমান তারা অন্যদের চেয়ে কাজে বেশি মনোযোগী থাকেন এবং তাদের বার্ষিক আয়ও বেশি থাকে। কর্মক্ষেত্র এবং বাড়িতেও সব সময় উৎফুল্ল থাকেন তারা।
ঘরে-বাইরে সামাল দিতে গিয়ে মহিলারা ঘুমের জন্য সময় একটু কমই পান, এ কথা কি আদৌ সঠিক? নারীরা যদি পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করেন, গুছিয়ে পালন করেন নিজের দায়িত্ব তাহলে প্রয়োজন অনুযায়ী ঘুমাতে পারবেন তিনি। কর্মজীবী কিংবা গৃহিণী নারীরা সব সময় নিজেদের রাখতে পারেন গোছানো ও পরিপাটি। নিয়মিত যোগব্যায়াম, ব্যায়াম, ইতিবাচক চিন্তা আপনাকে রাখবে সুস্থ ও সাবলীল। শরণাপন্ন হতে পারেন স্পা কিংবা ফেসিয়ালের। যেতে পারেন জিমে। মাথায় রাখবেন নিজেকে সুস্থ রাখতে, সৃষ্টিশীল রাখতে যা করা প্রয়োজন তা থেকে কখনই বঞ্চিত করবেন না নিজেকে।
সুখনিদ্রায় পরামর্শ
ষ ঘুমাতে যাওয়া এবং ঘুম থেকে ওঠার সময়টা ঠিক রাখুন। প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময় মেনে চলুন। ছুটির দিনটিও যেন এ রুটিনের বাইরে না যায়।
ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপনি পড়তে পারেন কোনো বই। মৃদুস্বরে শুনতে পারেন কোনো গান। পান করুন এক কাপ গরম দুধ। এটি আপনার ঘুমে সহায়তা করবে।
যে পোশাকটি পরে আপনি ঘুমাতে যাচ্ছেন তা কি ঘুমানোর উপযোগী? রাতে শোয়ার সময় ঢিলেঢালা সুতির পোশাক পরুন।
শোয়ার আগে অন্ধকার করে নিন আপনার ঘর। আলো নিভিয়ে ঘুমাতে গেলে পরিপূর্ণ ঘুমের নিশ্চয়তা পাবেন আপনি। আর নজর রাখেন কোনোরকম শব্দের প্রবেশ যেন না হয় শোয়ার ঘরে।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।