DIY Gift Boxes

বিশেষ বিশেষ দিনে উপহার দেয়ার প্রচলনটা নতুন না। কারো জন্মদিন, নববর্ষের শুভেচ্ছা, বন্ধু দিবস বা ভালোবাসা দিবসের স্পেশাল উপহারসহ নানান দিবস উপলক্ষ্যে উপহারও হয় ভিন্ন রকম। উপহারের উপর মানুষের রুচি ও সৃজনশীল মনোভাবের পরিচয় পাওয়া যায়। অনেক সময় অল্প দামের উপহারও অনেক বেশি অর্থবহ হয়ে উঠতে পারে, আবার অনেক দামী উপহারটিও হয়ে যেতে পারে কারো অপছন্দের। তাই উপহার দেয়ার ক্ষেত্রে দামের চেয়ে বেশি এর মানের দিকে নজর দেয়া উচিত। এছাড়াও উপহার দেয়ার ক্ষেত্রে আছে কিছু নিয়ম কানুন বা সাধারণ ভদ্রতা।

বয়সভেদে নির্বাচন করুন উপহার

উপহার দেয়ার সময় যাকে উপহার দিচ্ছেন তাঁর বয়সটা খেয়াল রাখুন। তার বয়স এবং তার সঙ্গে সম্পর্ক সব বিবেচনা করে উপহার দিন। আপনি যদি কোন ছোট বাচ্চার জন্মদিনে ডিনার সেট বা ঘর সাজানোর উপহার দেন তাহলে তা কিন্তু বাচ্চাটার কাজে লাগবে না এবং কোনো খেলনা বা চকোলেট না পেয়ে তাঁর মনটাও খারাপ হয়ে যাবে। আবার অপরদিকে আপনি যদি বয়স্ক কোনো ব্যক্তিকে চকোলেট উপহার দেন সেটাও মানানসই হবেনা।

উপহারের দাম নয়, মানটাই বড়

অনেকে আছেন মনে করেন খুব দামী উপহার না দিলে হয়তো তাকে গরীব ভাবা হবে। তাই সামর্থ্যের দিকে খেয়াল না রেখে বড়লোকি ভাব দেখানোর জন্য খুব দামী উপহার দিয়ে থাকেন, কিন্তু দামী উপহার দিতে যেতে আর খেয়াল রাখেন না উপহারটি আসলেই রুচিসম্মত কিনা বা উপহারের মানটা ভালো কিনা। তাই উপহার কেনার সময় খেয়াল রাখুন যেই উপহারটি দিচ্ছেন তা কতোটা মানসম্মত হলো। আবার খুব স্বল্প পরিচিত কাউকেও হঠাৎ দামী উপহার দেয়াটা অশোভন, এতে আপনার সম্পর্কে তাঁর মনে প্রশ্ন উঠতে পারে।

উপহার হিসেবে টাকা এড়িয়ে চলুন

ঈদের সালামি বা বিয়েতে গেট ধরা অনুষ্ঠান হলে আলাদা ব্যাপার কিন্তু উপহার হিসেবে কাউকে টাকা দিতে যাওয়াটা একটু দৃষ্টিকটু। অনেকেই ব্যাপারটা ভালোভাবে গ্রহণ করে না, বিশেষ করে সম্পর্কে যদি হয় কাছের কেউ। তাই যদি বুঝে উঠতে না পারেন কি উপহার দিবেন বা যদি টাকা দিয়ে দিবেন এমন ভেবে থাকেন তাহলে একটু বুদ্ধি করে প্রাইজবন্ড বা গিফট কুপন দিয়ে দিবেন।

প্রাইস ট্যাগ বা রসিদ তুলে ফেলুন

কোনো জিনিসের গায়ে স্বাভাবিকভাবেই থাকে প্রাইস ট্যাগ বা দ্রব্যমূল্য। কিন্তু যখন আপনি সেই জিনিসটি কাউকে উপহার হিসেবে দিতে যাবেন তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যে জিনিসটি থেকে প্রাইস ট্যাগ উঠানো হয়েছে। উপহার কেনার পর যেই রশিদ দেয়া হয় সেটি যেনো ভুল করেও আবার উপহারের সাথে চলে না যায় খেয়াল রাখবেন

উপহারের গায়ে লিখে দিন দুটি লাইন

যাকে উপহার দিচ্ছেন তাকে উদ্দেশ্য করে যদি কোনো শুভেচ্ছা বানী বা ছোট কোনো কথা লিখে দেন তাহলে তা আনন্দের মাত্রা আরেকটু বাড়িয়ে দেয়। উপহার যদি কার্ড হয় তাহলে কার্ডের ভিতরের সাদা কাগজে নিজের কথা বা কবিতার লাইন লিখে দিতে পারেন আর যদি অন্য কোন উপহার হয় তাহলে সেই বক্সের উপরে বা ভিতরে একটি কাগজ এঁটে লিখে দিতে পারেন আপনার মনমতো কোনো কথা।

ছেলে-মেয়েভেদে উপহার নির্বাচন

একটি ছেলে আর একটি মেয়ের পছন্দের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই স্বভাবত কিছু পার্থক্য থাকে। তাই উপহার নির্বাচনের ক্ষেত্রে এই বিষয়ে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন। মেয়েরা ঘর সাজানোর জিনিস বা শোপিস পেলে যেমন খুশি হবে, একটি ছেলে আবার এধরনের উপহারে খুশি হবেনা। ছেলেরা বরং খুশি হবে কোনো সিডি বা ডিভিডি পেলে অথবা সিডি/ডিভিডি রাখার বাক্স পেলে।

র‍্যাপিং করে দিন

উপহার তা যতোই ছোট হোক না কেনো চেষ্টা করুন র‍্যাপিং করে দিতে। তবে র‍্যাপিং পেপার পছন্দ করার সময় বেশি রঙচঙে পেপার নির্বাচন না করে হালকা রঙের বাছাই করুন। এখন কাগজের র‍্যাপিং পেপারও পাওয়া যায়, একরঙা র‍্যাপিং পেপার দেখতেও ভালো লাগে। আর অনেক দোকানেই র‍্যাপিং পেপারে উপহার প্যাকেট করে দেয় দোকানীরাই, তাই তা নিয়ে চিন্তা করতে হয় না। তবে চাইলে আপনি নিজেও ডিজাইন করে র‍্যাপিং পেপারে মুড়ে দিতে পারেন উপহার।

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Note: All are Not copyrighted , Some post are collected from internet. || বিঃদ্রঃ সকল পোস্ট বিনোদন প্লাসের নিজস্ব লেখা নয়। কিছু ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত ।